ভোল পাল্টালো আবহাওয়া, ফের শৈত্যপ্রবাহ, জারি হলো সতর্কতা, জেনে নিন

পৌষের শেষাশেষি বাঙালীর শীতের আমেজে টান পড়েছিল। ফলে শীত বিলাসী বাঙালির মন বেজায় খারাপ হয়ে গিয়েছিল। তবে মাঘ মাসের শুরু থেকেই শীত ফিরেছে বঙ্গে। শীত এবার ক্রমশই জাঁকিয়ে বসছে বঙ্গে। জানুয়ারি মাস থেকেই কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে শীতের দাপট বেশ টের পাওয়া যাচ্ছে। আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুসারে, চলতি সপ্তাহের শেষ ভাগেও বঙ্গে বেজায় শীত অনুভূত হবে।

এদিকে পশ্চিম হিমালয়ে সৃষ্ট পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাবে আগামী ২২ থেকে ২৪শে জানুয়ারি পশ্চিম হিমালয় এলাকায় বৃষ্টিপাতের পাশাপাশি তুষারপাত চলবে বলে জানানো হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে আগামী দুই থেকে তিন দিন তাপমাত্রার পারদ নিচের দিকে নামবে বলে জানানো হয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুসারে পশ্চিমবঙ্গের তাপমাত্রা দুই থেকে তিন দিন কমে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এই রাজ্যের পাশাপাশি উত্তর ভারতের রাজ্যগুলিতেও বেজায় ঠান্ডা পড়েছে। পার্বত্য অঞ্চলে তুষারপাতের কারণে উত্তর ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে শৈত্যপ্রবাহের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। শীতের দাপটের পাশাপাশি কুয়াশার দাপটেও নাজেহাল উত্তর ভারত। আগামী তিন দিনে উত্তর পশ্চিম ভারতের বিভিন্ন জায়গায় নূন্যতম তাপমাত্রা ২ থেকে ৪ সেলসিয়াসে নেমে আসতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

উত্তরাখণ্ড, দিল্লি, পঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়ে ২০ এবং ২১শে জানুয়ারি পরপর দুদিন ঘন কুয়াশার পাশাপাশি শৈত্যপ্রবাহের সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। উত্তর ভারতের পাশাপাশি বিহারও আগামী তিন দিন ঘন কুয়াশার চাদরে মুড়ে থাকবে বলে জানানো হয়েছে। বিহারের পাশাপাশি রাজস্থানের তাপমাত্রাও অনেকখানি নীচে নেমে গিয়েছে। ফলে উত্তর পশ্চিম ভারতসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে শীতের প্রবল দাপট অনুভূত হচ্ছে।