কিছুদিন আগেই ভূমিষ্ঠ হয়েছিল, নিজের সন্তানকেই খেয়ে নিল বাঘিনী

প্রতীক ছবি

ঘটনাটি ঘটেছে বর্ধামানের রমনাবাগান অভয়ারণ্যে। সেখানেই সদ্য চিতাবাঘের বাচ্চা উধাও। এরপরেই খোঁজ শুরু হয়ে যায় সদ্যজাত শাবকের। সবাই মনে করে হয়তো পালিয়ে গেছে দূরে কোথাও? এই খবর রটে যায় সারা শহর জুড়ে। কিন্তু যখন শেষে আর পাওয়া যায় না তখন মনে করা হয়, তাহলে হয়তো মা খেয়ে ফেলেছে শাবককে। পরে অবশ্য সেটাই সত্যি হয়। কারণ বনদপ্তর জানিয়েছে চিতাবাঘের মল পরীক্ষা করে তার প্রমাণ পাওয়া যায়।

আসলে কিছুদিন আগেই পাওয়া গিয়েছিল খুশির খবর, একেবারে সবাই খুশি বর্ধামানের এই রমনা জুলজিক্যাল বাগানে। আসলে অনেক দিন পরে কালীর এই সন্তানকে নিয়ে খুশিতে মেতে উঠেছিল সবাই। নতুন শাবকের জন্মে একেবারে আনন্দঘন মূহুর্তের সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু সেই আনন্দ একেবারে মাটি করে দিল মা নিজেই।

আসলে কালীর খাঁচা পরিস্কার করতে এসেই দেখা যায় খুদে চিতা খাঁচায় নেই। এরপরেই সেটা জানানো হয় অধিকারীদের তারপরেই শুরু হয় খোঁজাখুঁজি। এমন খোজাখোজি যা কালঘাম ছুটিয়ে দেয় সবার, কিন্তু খোঁজ পাওয়া যায় না শাবকের। তাহলে কি ত্রিস্তরীয় নিরাপত্তার বেড়াজাল টপকে বেড়িয়ে গেছে চিতা? এই নিয়ে প্রশ্ন উঠতে থাকে সবার মনে। কিন্তু এরপরেই জানা যায়, মা তার নিজের বাচ্চাকেই খেয়ে নিয়েছে। কারণ যখন সর্বত্র খোঁজাখুঁজি করা হয়, তখন দেখা যায় কোনো জায়াগায় নেই। তারপরেই সন্দেহ গড়ায় মায়ের ওপরেই, পরে যখন মায়ের মল পরীক্ষা করা হয়, তখন সেই আন্দাজ একেবারে সত্যি হয়ে যায়।