‘কোভিশিল্ড’ এর তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু ভারতে, টিকা দিতে শুরু করেছে সেরাম

সম্প্রতি অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার আবিষ্কৃত করোনা ভাইরাসের টিকা “কোভিশিল্ড” এর তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু হলো ভারতে। ভারতের সর্ববৃহৎ ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা সেরাম ইনস্টিউট অফ ইন্ডিয়া দেশে এই ভ্যাকসিনের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল’ পরিচালনা করছে। ড্রাগ কন্ট্রোল বোর্ডের অনুমোদন পাওয়ার পর সেরাম ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে পুনের হাসপাতালে “কোভিশিল্ড” এর তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু হয়েছে।

ইতিপূর্বে, ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পর্বের ট্রায়াল’ মিলিয়ে ভারতের প্রায় ১৬০০ জন স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করতে চেয়েছিল সেরাম ইনস্টিটিউট। তবে ব্রিটেনে এক স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে ভ্যাকসিন প্রয়োগের ফলে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেওয়ায় তৎক্ষণাৎ ট্রায়াল’ বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয় সেরাম ইনস্টিটিউট। পরে ড্রাগ কন্ট্রোল বোর্ডের অনুমোদন পেয়ে আবারো ট্রায়াল’ প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে।

এই পর্বে, আরো বেশি সংখ্যক মানুষের শরীরে ভ্যাকসিন প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। দেশের প্রায় ১৭ টি স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানে এই ট্রায়াল’ চালানোর পরিকল্পনা করেছে সেরাম। গতকাল পুনের স্যাসন জেনারেল হাসপাতালে তৃতীয় পর্বের ট্রায়াল প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষেরপক্ষে তরফ থেকে জানানো হয়েছে, তৃতীয় পর্বে স্বেচ্ছাসেবকদের শরীরে দুটি ডোজে ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে। বর্তমানে ওই হাসপাতালে ১৫০-২০০ জনের শরীরে ভ্যাকসিন প্রদান করার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

এছাড়াও দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল কলেজ, পুনে বি জে মেডিকেল কলেজ, পাটনার রাজেন্দ্র মেমোরিয়াল রিসার্চ ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল কলেজ, চণ্ডীগড়ের পোস্ট গ্রাজুয়েট ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল এডুকেশন এন্ড রিসার্চ, যোধপুর এইমস, গোরক্ষপুরের নেহেরু হাসপাতাল, বিশাখাপত্তনমের অন্ধ্র মেডিকেল কলেজ, মাইসোরের জেএসএস অ্যাকাডেমি অফ হায়ার এডুকেশন এন্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউটে কোভিশিল্ডের তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের চলবে বলে জানা গেছে।