অচলাবস্থা কাটাতে ১১ জানুয়ারি কৃষি আইন নিয়ে অবস্থান স্পষ্ট করবে সুপ্রিম কোর্ট, তাকিয়ে গোটা দেশ

কেন্দ্রীয় সরকারের প্রণীত নতুন তিনটি কৃষি আইন নিয়ে কৃষক এবং কেন্দ্রীয় সরকারের তরজা এখনো শেষ হয়নি। বিগত বেশ কয়েকদিন ধরে কৃষক সংগঠন এবং কেন্দ্রীয় সরকারের মধ্যে দফায় দফায় বৈঠকেও কোনো নিশ্চিত সিদ্ধান্তে আসা সম্ভবপর হয়নি। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে বিভিন্ন বিষয়ে আশ্বাস প্রদান করা হলেও কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে অনড় কৃষকেরা। এই সমস্যার সমাধানে এবার হস্তক্ষেপ করলো সুপ্রিম কোর্ট।

দীর্ঘ বেশ কয়েকদিন ধরে দফায় দফায় বৈঠকের পরেও কেন্দ্রীয় সরকার এবং কৃষকেরা যখন কেন্দ্রের প্রণীত নতুন তিনটি কৃষি আইন নিয়ে কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পারলেন না সেই পরিস্থিতিতে মধ্যস্থতা করতে এগিয়ে এসেছে দেশের উচ্চ আদালত। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবদের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চটি বুধবার সকালে জানিয়ে দিল, আগামী ১১ই জানুয়ারি শীর্ষ আদালত উভয় পক্ষ থেকেই এই আইন সম্পর্কিত সমস্ত অভাব-অভিযোগ এবং দাবি শুনবে।

উল্লেখ্য, আইনজীবী এমএল শর্মার তরফ থেকে দায়ের করা একটি মামলার পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার এহেন শুনানি প্রদান করেছে সুপ্রিম কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। আইনজীবী উচ্চ আদালতে জানিয়েছেন, এই আইন প্রণয়নের কোনো সাংবিধানিক যুক্তি নেই। এই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, কেন্দ্রের প্রণীত কৃষি আইন এবং অন্যান্য বিষয়গুলি নিয়ে কৃষকদের যে অভিযোগ রয়েছে আগামী ১১ই জানুয়ারি তা শুনবে সুপ্রিম কোর্ট।

তবে কেন্দ্রের তরফের অ্যাটর্নি জেনারেল কে কে বেনুগোপাল অবশ্য উচ্চ আদালতে জানিয়েছেন, অচিরেই উভয় পক্ষের তরফে আলোচনার মাধ্যমে এই সমস্যা সমাধান করে ফেলার সম্পূর্ণ সম্ভাবনা রয়েছে। এমতাবস্থায় কেন্দ্রকে যদি এখনই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হতে হয় তাহলে আলোচনা ব্যর্থ হয়ে যাবে বলেই দাবি করছেন কেন্দ্রের তরফের অ্যাটর্নি জেনারেল।