অবাক লাগলেও সত্যি! আগামী ৬৫ দিন সূর্যের দেখা মিলবে না আলাস্কার এই শহরে

পৃথিবীর একেবারে প্রান্তভাগে অবস্থিত আলাস্কা। প্রতিবছর এই অঞ্চলে নিয়ম করে দুইমাস একটানা দিন, দুই মাস একটানা রাত অনুভব করেন বাসিন্দারা। পৃথিবীর একেবারে প্রান্তভাগে অবস্থিত হওয়ার দরুন বছরের দুটো মাস এই অঞ্চলে সূর্যের আলো সেভাবে পড়ে না। সেই সময়টাকে বলা হয় মেরু রাত্রি। আবার ভৌগোলিক অবস্থানের কারণেই বছরের দুটো মাস একটানা সর্বক্ষণ আকাশে সূর্যের উপস্থিতি থাকে। ওই দুই মাস ২৪ ঘন্টাই দিনের আলোকের মতই ঝকঝক করে আলাস্কা।

গত বুধবার থেকেই আলাস্কায় মেরু রাত্রি পর্ব কাল শুরু হয়ে গিয়েছে। যা আগামী ২২শে জানুয়ারি পর্যন্ত থাকবে। অর্থাৎ এই দুই মাস আকাশে সূর্যের মুখ দেখতে পাওয়া যাবে না। তা বলে এই নয় যে আলাস্কা সবসময়ই ঘোর অন্ধকারে ডুবে থাকবে! ভোরের দিকে সূর্য উঠার সময় স্বাভাবিকভাবেই আলাস্কার আকাশও আলোকিত হয়ে উঠবে। তবে তা বেশিক্ষনের জন্য স্থায়ী হবে না। মাত্র কয়েক ঘন্টার মধ্যেই আকাশে আঁধার নেমে আসবে।

গত বুধবার স্থানীয় সময় দেড়টা নাগাদই আলাস্কার ব্যারো অঞ্চলের বাসিন্দারা চলতি বছরের মতো সূর্যকে শেষ বিদায় জানিয়েছেন। আগামী ৬৫টি দিন আলাস্কার আকাশে আধারের স্নিগ্ধতা বিরাজ করবে। উল্লেখ্য, বিগত কয়েকদিন ধরেই আলাস্কার আকাশ মেঘলা ছিল। ফলে সূর্যের মুখ সেভাবে দেখার সুযোগ হয়ে উঠছিল না বাসিন্দাদের। অনেকেই হতাশ হয়ে পড়েছিলেন, চলতি বছরে হয়তো শেষবারের মতো সূর্যকে দেখা যাবে না।

তবে বাসিন্দাদের আশঙ্কা দূর করে গত বুধবারেই আলাস্কার আকাশে শেষবারের মতো সূর্য দেখা দেয়। সেই মুহূর্তকে ক্যামেরাবন্দি করে ফেলেন এলাকার বাসিন্দারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় তা ভাগ করে নিতেও ভোলেননি তারা। শেষ বেলার সূর্য যেন তাদের নস্টালজিক করে দিয়েছে। মেঘ সরে যাওয়াতে খুশি এলাকার বাসিন্দারা মেঘের প্রতি ধন্যবাদ জানাতেও ভোলেননি। সূর্য বিদায় নেওয়াতে অনেকেই মনোক্ষুন্ন। তবে পোলার নাইট তথা মেরু রাত্রিকেও অভ্যর্থনা জানাচ্ছেন সকলেই।