গল্পের কোনো মা’থামু’ন্ডু নেই, বি’র’ক্তি’ক’র সিরিয়াল “শ্রীময়ী” বন্ধের দাবি জানাচ্ছেন দর্শকরা

গত বছর পর্যন্ত শ্রীময়ী নিয়ে যতটা উত্তেজনা ছিল সাধারণ মানুষের মধ্যে, এই বছর সেই উত্তেজনায় যেন অনেকটাই ভাটা পড়ে গেছে। এই ধারাবাহিক যখন মুক্তি পেয়েছিল তখন রীতিমতো নজর কেড়ে নিয়েছিল দর্শকদের। সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের একজন নারীর জীবন কে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছিল এই গল্প। ইন্দ্রানী হালদার সহ অভিনেতা অভিনেত্রীদের অভিনয় যেন সহজে মুগ্ধ করেছিল সকলকে। টিআরপি যেনো দিন দিন বেড়েই যাচ্ছিল শ্রীময়ী নামক এই সিরিয়াল টির।

তবে গল্পের গতি যেন দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে। যে গল্প শুরু হয়েছিল মধ্যবিত্ত পরিবার কে ঘিরে সে যেন নিজেই আজ নিজের আদর্শ হারিয়ে ফেলেছে। দর্শকদের থেকে গুরুত্ব হারিয়ে ফেলেছে শ্রীময়ী। লেখিকার কলমের দুর্বলতা দিন দিন যেন আরও বেশী স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এই সিরিয়ালটি আর টিভির পর্দায় কোনভাবেই দেখতে চাইছেন না অনুরাগীরা। গল্পের লেখিকা লীলা গঙ্গোপাধ্যায় যেভাবে গল্পটি কে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তা এক কথায় অসহ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে সকলের কাছে। আরো বেশি অসহ্য হয়ে যাবার আগেই ধারাবাহিকটা অবলম্বনে বন্ধ করার দাবি তুলেছেন নেটিজেনরা।

প্রাক্তন স্বামী এবং সন্তানের প্রতি শ্রীময়ীর এইরকম উদার মনোভাব যেন একেবারেই সহ্য করতে পারছেন না নেটিজেনরা। সকলেরই বক্তব্য, বাস্তব জীবনে এমন উদার মনোভাব হয়না কোন মানুষের। সম্প্রতি শ্রীময়ীর গল্প এগিয়ে চলেছে দিহি অপহরণ করার কান্ড কে ঘিরে। এটি আরো বিরক্ত করে তুলেছে মানুষকে। একজন এমবিএ পড়ুয়া ব্রিলিয়ান্ট মেয়ে নাকি একজন অসামাজিক কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত গুন্ডাকে বিয়ে করার কথা ভাবছে।

এদিকে এমন কঠিন মুহূর্তেও শ্রীময়ী জীবন থেকে উধাও হয়ে যায় তার সুখ দুঃখের সঙ্গী রহিত সেন। প্রাক্তন স্বামী অনিন্দ্য সেনগুপ্তের প্রতি আরও একবার ভালোবাসা জেগে উঠেছে শ্রীময়ীর। এক কথায় বলতে গেলে প্রতিদিন দর্শকদের প্রত্যাশায় যেন জল ঢেলে দেওয়া হচ্ছে। তাই আস্তে আস্তে শ্রীময়ীর সময় টিতে মানুষ অন্য কিছু দেখার জন্যে উদগ্রীব হয়ে থাকছেন। খুব অসহ্য লাগলে টিভি টিমিউট করে দিচ্ছেন অথবা চ্যানেল পাল্টে দিচ্ছেন।