এবারও রেলের চিঠিতে জবাব দিলো না রাজ্য, পুজোর আগে ট্রেন চলাচল নিয়ে থেকেই গেলো প্রশ্নচিহ্ন

পুজোর মধ্যে লোকাল ট্রেন চলাচল শুরু হলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আনা যাবে না। তাই পূজার মধ্যে অথবা পূজা চলাকালীন সময়ে ট্রেন চলাচলের অনুমতি দিলো না রাজ্য সরকার। উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রেলের তরফ থেকে রাজ্য সরকারকে একটি চিঠির মাধ্যমে লোকাল ট্রেন পরিষেবা শুরু করার জন্য প্রয়োজনীয় আলোচনার উদ্দেশ্যে বৈঠকে বসার আহ্বান করা হয়েছিল।

রেল দপ্তর সূত্রে খবর, রেলের সঙ্গে বৈঠকে বসা প্রসঙ্গে এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া দেয়নি রাজ্য সরকার। অতএব পুজোর আগে এরা যে লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু করা হবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। শিয়ালদের ডিআরএম এসপি সিং এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বললেন, রাজ্যের তরফ থেকে এ বিষয়ে এখনো পর্যন্ত কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

পুজোর আর সাত দিনও বাকি নেই। এখন লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু করতে গেলেও তা দশদিনের আগে বাস্তবায়িত হওয়া সম্ভব নয়। অতএব অতএব লোকাল ট্রেন পরিষেবা পেতে গেলে রাজ্যবাসীকে এখনো পুজোর পর অবদি অপেক্ষা করতে হবে বলেই জানালেন রেলের কর্মকর্তা। এদিকে আনলক পর্বে দেশে একের পর এক বিভিন্ন পরিষেবা চালু করা হলেও লোকাল ট্রেনের পরিষেবা বন্ধ কেন, সেই নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করছেন নিত্যযাত্রীরা।

বেশকিছু স্টেশনে ভাঙচুরও চালান তারা। এই পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে রেলওয়ে বোর্ডের তরফ থেকে রাজ্যকে বারবার চিঠি দিয়ে লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু করার বিষয়ে আবেদন জানানো হচ্ছে। তবে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে এখনই ট্রেন পরিষেবা শুরু করতে চাইছে না রাজ্য সরকার। কারণ, লোকাল ট্রেনগুলিতে যেরকম ভিড় হয় তাতে সংক্রমণ আরো ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে, রেলওয়ে বোর্ডের তরফ থেকে ক্রমাগত চেষ্টা চালানো হচ্ছে, যাতে যাত্রীদের দাবি মেনে এ রাজ্যে পুনরায় লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু করা যায়।