মা’ই’নে মাত্র ৪ হা’জা’র টা’কা, অ’ভা’বে’র সং’সা’রে ব’ড়ো হয়েছেন, তিনিই এখন কো’টি কো’টি টা’কা’র মা’লি’ক

বলিউডের অন্যতম বিখ্যাত অভিনেতা হলেন অক্ষয় কুমার এক কথায় বলা যেতে পারে তাকে খাতরো কা খিলাড়ি। তিনি এমন একজন অভিনেতা যিনি ব্ল্যাক বেল্ট বিজয়ী এবং নিজের স্টান্ট নিজে করতে ভালোবাসেন। যখন তিনি অভিনয় জগতে প্রবেশ করেছিলেন তখন তার হাতে ছিল না কোনো গডফাদারের হাত। কার্যত বলা যায় একা নিজের অভিনয় দক্ষতা দ্বারা সকলের মন জয় করে দিয়েছিলেন তিনি। তিনি যখন অভিনয় জগতে প্রবেশ করেছিলেন তখন তিনি একজন অ্যাকশন হিরো হিসেবে প্রবেশ করেছিলেন, তারপর আজ সেই স্থান থেকে তিনি সব রকমের চরিত্র করতে সাবলীল।

তবে ছোটবেলা থেকে তার পরিবারের অবস্থা কিন্তু সচ্ছল ছিল না। দশম শ্রেণীতে পড়াশোনা করার সময় তিনি সংসারের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন। সেই ভাবে পড়াশোনায় মন বসত না তার। পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি মার্শাল আর্ট শিখতে চেয়েছিলেন। বাবার কাছে সেই মনের কথা জানাতে বাবা প্রথমে রাজি হননি। পরে খুব কষ্টের টাকা জোগাড় করে ছেলেকে মার্শাল আর্ট শিখিয়েছিলেন।

এরপর অভিনেতা পাঁচ বছর ধরে ব্যাংককে ছিলেন মার্শাল আর্ট শেখার জন্য। তারপর ফিরে এসে বিভিন্ন রাজ্য ভ্রমণের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছিলেন। এমনকি কলকাতাসহ ঢাকাতেও বেশ কিছুদিন ছিলেন তিনি। ভ্রমণ পর্ব শেষ করলে মুম্বাই শহরের কুন্দন জুয়েলারি কাজ শুরু করেছিলেন তিনি। পাশাপাশি ছোট বাচ্চাদের মার্শাল আর্ট শেখার স্কুল শুরু করেছিলেন অভিনেতা।

তবে চিরকাল মডেলিং এবং অভিনেতা হবার স্বপ্ন ছিল তার। সেই স্বপ্নকে বুকে করে বেঁচে থাকতেন তিনি। সেইসঙ্গে অভিনেতারা তিন হাজার থেকে পাঁচ হাজারের মতো টাকা আয় করতেন। একসাথে বাবার মুখে কথা শুনে অক্ষয় কুমার উপস্থিত হলেন মডেলিংয়ের ফ্লোরে। সেখানে তার হাইট এবং লুক দেখে সহজে তাকে সিলেক্ট করলেন বিচারকরা। পারিশ্রমিক হিসেবে পেয়েছিলেন ২১ হাজার টাকা।

ঠিক সেই মুহূর্ত থেকে অভিনেতা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন যে তিনি অভিনেতা হবেন, যত ঝড় ঝাপটা আসুক না কেন তিনি হার মানবেন না। বিভিন্ন জায়গায় পরিচালক এবং প্রযোজকদের কাছ থেকে ছবির আশায় যেতেন তিনি। এইসময় হঠাত করে বলা চলে একরকম মিরাক্কেল ভাবে, তিনি পেয়ে গেলেন একটি সিনেমাতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ।

প্রথম ছবিতে অভিনয় করেই সকলের মন জয় করে নিয়েছিলেন তিনি। তার মতো একজন অভিনেতা বহুদিন ইন্ডাস্ট্রিতে আসেনি সেই সময়ে। ভবিষ্যৎ জীবনে টুইংকেল খান্নার সাথে বিয়ে হয়েছিল তার। আজ ধনীদের তালিকায় প্রথম দিকে নাম রয়েছে তার। আজও এই বয়সে তার মত ফিটনেস বহু মানুষের নেই।