২১ সেপ্টেম্বর থেকে পুনরায় স্কুল খোলা বাধ্যতামূলক নয়, নির্দেশিকা জারি করলো কেন্দ্রীয় সরকার

চলতি বছরে প্রায় গোড়ার দিক থেকে বন্ধ রয়েছে সমস্ত স্কুল। বাড়িতে বসেই অনলাইনে পড়াশোনা করতে হচ্ছে ছাত্র-ছাত্রীদের। চলতি মাসে সবকিছু আস্তে আস্তে স্বাভাবিক খাবার ফলে ফের স্কুলগুলোকে শিক্ষক এবং অশিক্ষক কর্মীদের জন্য আংশিক খোলা এবং নবম এবং দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের স্বেচ্ছা উপস্থিতির জন্য অনুমতি দেয়া হয়েছে সরকার থেকে।কবে স্কুল খোলা রাখা এবং শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি এর ব্যাপারে রাজ্য সরকার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে বলেই জানা গেছে।

তবে কেন্দ্র স্কুল খোলার জন্য অনুমতি দিলেও বেশিরভাগ রাজ্য সরকার এখনই বিদ্যালয়গুলি খোলার ব্যাপারে আগ্রহ দেখাচ্ছেন না।হরিয়ানা এবং দিল্লি সরকার নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পাঠ্য বিষয় সম্পর্কে সন্দেহ দূর করার জন্য বা সহযোগিতা করার জন্য স্কুলে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছেন।তবে হরিয়ানা এবং পাঞ্জাব ছাড়া বহু রাজ্য এই পরিস্থিতিতে এখনই স্কুল কলেজ খোলার মত ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করতে আগ্রহী নয়। যে রাজ্যগুলি আগামী সপ্তাহ থেকে আবার স্কুল খোলার পরিকল্পনা করেছেন, তাদের স্বাস্থ্যমন্ত্র কে জারি করা SOP গুলি অনুসরণ করতে হবে।

এছাড়া লকডাউন উঠে যাবার পর বিশেষ পরিস্থিতিতে শিক্ষক এবং অশিক্ষক কর্মীদের জন্য ২২ শে সেপ্টেম্বর ২০২০ স্কুল খোলা যেতে পারে বলে জানানো হয়েছে। তবে চলতি মাসে নিয়মিত ক্লাস হবে না বলে জানানো হয়েছে। পুজোর পর পরিস্থিতি আরও একটি স্বাভাবিক হলে স্কুল এবং কলেজ গুলি সমস্ত নিয়মকানুন মেনে খোলার কথা চিন্তা ভাবনা করছে পশ্চিমবঙ্গ সহ অন্যান্য রাজ্যগুলি।