মালিক দেয়নি টাকা, অভুক্ত থেকেই বিহার থেকে হাঁটা পথেই কোচবিহারের উদ্দেশ্যে 70 শ্রমিক

জমানো যা টাকা ছিল তাও সেই। আর মালিক কোন টাকা দিতে নারাজ। তাই বিহারের সাহুডাঙ্গি থেকে পায়ে হেঁটেই কোচবিহারের উদ্দেশ্যে ৭০ জন পরিযায়ী শ্রমিক। ওই ৭০জন শ্রমিকদের মধ্যে ৪০ জন মহিলা ও ১৫ জন ছোট শিশুও রয়েছে। রবিবার রাতে পায়ে হেঁটে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছে। এরপর এদিন সকালে শিলিগুড়ি মহকুমার বাংলা বিহার সীমান্তের ধুমনিরহাটে এসে পৌঁছায়। এবং সেখাই একটি গাছের নীচে বসেই বিশ্রাম করেন তারা।

ওই শ্রমিকদের মধ্যে আনোয়ার হুসেন বলেন যে আমরা যে ইটভাটায় কাজ করতাম সেখান থেকে আমাদের বলা হয় যে যত তারাতারি সম্ভব বাড়ি ফিরে যাবার জন্য। এমনকি আমরা যা টাকা পেতাম সেই টাকাও কেটে নেয় ভাটার মালিক। এরপর আমরা বিহার পুলিশের সাথে যোগাযোগ করি বাড়ি ফিরে যাবার জন্য।

কিন্তু বিহার পুলিশ আমাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেন। এর পাশাপাশি অপর এক শ্রমিক মহম্মদ সায়েদ আলি বলেন যে আমরা সারা রাত কোন কিছু না খেয়েই পায়ে হেঁটে এই জায়গায় এসে পৌয়াই। এবং যে ভাটায় ছিলাম সেই ভাটা থেকে বলা হয় তারা আমাদের কোন রকম সাহায্য করতে পারবেন না। তাই রাজ্য সরকারের কাছে আবেদন করে যাতে আমরা সবাই বাড়ি ফিরতে পারি।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন

/p>