ক’রো’না’র মধ্যেই ন’য়া আ’ত’ঙ্ক জিকা ভা’ই’রা’স, সতর্কতা জা’রি ক’র’লো রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তর

গত বছর থেকে করোনা ভাইরাস আমাদের জীবনে তার দাপট দেখিয়ে বেড়াচ্ছে। করোনা ভাইরাসের প্রকোপে সাধারণ মানুষের জীবন আজ ওষ্ঠাগত। তারই মধ্যে চলতি বছরেই করোনাভাইরাসের সঙ্গে আর এক জন এসে উপস্থিত হল, তা হল ব্ল্যাক ফাঙ্গাস। করোনা থেকে যারা সুস্থ হয়ে উঠেছে সেই সমস্ত রোগীদের ওপরই থাবা বসাচ্ছিল এই ব্ল্যাক ফাঙ্গাস। এরমধ্যেই আবার নতুন করে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে জিকা ভাইরাস। সম্প্রতি কেরলে প্রায় ১৩ জনের মধ্যে এই জিকা ভাইরাসের প্রকোপ দেখা গেছে।

যাদের শরীর সম্পূর্ণভাবে সুস্থ সেই সমস্ত মানুষদের ওপরও প্রভাব ফেলছে এই জিকা ভাইরাস। এই ধরনের ভাইরাসের প্রভাবে যে সমস্ত উপসর্গ দেখা দিচ্ছে তা হল মাথা ব্যাথা, চোখের সমস্যা এবং সামান্য জ্বর। রাজ্যে এই ধরনের রোগের প্রকোপটা বেশ বাড়তে থাকার জন্য সতর্কতামূলক বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তর। সব জেলাতে নির্দেশিকা পাঠানো হচ্ছে এবং স্বাস্থ্য আধিকারিকদের এই ভাইরাসের সম্পর্কে সর্তকতা অবলম্বন করতে বলা হচ্ছে।

বর্ষাকালে ছোটদের এবং যারা বয়স্ক তাদের সাবধানতা বেশি করে অবলম্বন করার কথা বলা হচ্ছে রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে। হালকা জ্বর গা হাত পা ব্যথা অথবা চোখে কোনো সমস্যা দেখা দেয় তাহলে যেন অবহেলা না করা হয় তারা চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞ অথবা জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে পরামর্শ নেন। স্বাস্থ্য দপ্তরে থেকে খবর এসেছে সম্প্রতি কলকাতায় এই ধরনের রোগ দেখা দিচ্ছে এবং এই রোগ মশাবাহিত। এই রোগে খুব একটা বেশি আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই, কারণ সপ্তাহখানেকের মধ্যেই রোগী সুস্থ হয়ে যাচ্ছে।

তবে সময়মতো চিকিৎসা করা প্রয়োজন। একদিকে করোনার মত মহামারী, তার ওপর আবার এই ধরনের মশাবাহিত ভাইরাসে রাজ্যবাসী যেন আতঙ্কিত না হয় সেই জন্যেই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরে তরফ থেকে।