মাসে আয় হবে ১ লক্ষ টাকা, সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবে কেন্দ্রীয় সরকার, জানুন পুরো গল্প

চলতি বছরে শুধুমাত্র ভারতবর্ষের বুকে কাজ হারিয়েছেন লক্ষ লক্ষ মানুষ।উচ্চবিত্তদের সেইভাবে সমস্যা না হলেও মধ্যবিত্ত এবং নিম্নবিত্তদের সংসার চালানো প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে। দিন আনা দিন খাওয়া রুজি রোজগার করা মানুষ, পরিযায়ী শ্রমিক, সকলের জীবন হয়ে পড়েছে দুর্বিষহ। বহু মানুষ সংসার টানতে না পেরে আত্মহত্যার দিকে নিজেকে ঠেলে দিয়েছে। এই সময় চাকরি ছেড়ে মানুষদের ব্যবসা শুরু করবে, তার জন্য পুঁজি নেই কারো কাছে। আবার বুঝি থাকলেও এই সময়ে ব্যবসা করার মত রিক্স নিতে চাইছে না অনেকে।তবে এবার আপনাদের কাছে আনতে চলেছি একটি বাম্পার লাভের ব্যবসার কথা,
জানলে অবশ্যই অবাক হবেন, তবে আপনি যদি ইট তৈরির ব্যবসা শুরু করতে পারেন, তাহলে অবশ্যই আপনি লাভবান হবেন।

এই ব্যবসা মাত্র দু লক্ষ টাকা দিয়ে শুরু করা যেতে পারে। এই ব্যবসাতে প্রতিমাসে আপনি উপার্জন করতে পারেন এক লক্ষ টাকা।
বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে নির্গত ছাই, সিমেন্ট এবং পাথরের ধুলোয় মিশিয়ে তৈরি করা হয় একটি বিশেষ ধরনের ইট। তবে এই ব্যবসাটি শুরু করবার জন্য আপনার লাগবে অনেকখানি জায়গা। আপনার কাছে যদি ১০০ গজ জমি থাকে, তাহলে নিঃসন্দেহে এই ব্যবসাটি অবশ্যই আপনার জন্য।এই ব্যবসায় আপনার টাকা খরচ হবে শুধুমাত্র মেশিন এর ওপর।এই ব্যবসাতে সে রকম লোকবল লাগবে না আপনার। মাত্র ৫থেকে ৬ জন লোক নিয়ে এই ব্যবসাটি আপনি শুরু করতে পারেন। তবে প্রথমে আপনাকে খরচ করতে হবে ২লক্ষ টাকা। এই টাকা দিয়ে আপনি প্রথমে তিন হাজার ইট তৈরি করুন।

আপনি যদি কোনো বড় নির্মাণকারী সংস্থা র সঙ্গে চুক্তি করে নিতে পারেন, তাদেরকে সেই চুক্তি অনুযায়ী সরবরাহ করতে পারেন, তাহলে আপনাকে আর ঘুরে তাকাতে হবে না।এবার যদি আপনি একটি স্বয়ংক্রিয় মেশিন রাখেন তাহলে অবশ্যই আপনার উপার্জন আরো বেশি বাড়বে।তবে মেশিনের দাম হয় ১০ থেকে ১২ লক্ষ টাকা।মেশিনটি নিজেই কাঁচামাল মিশ্রিত করা থেকে শুরু করে ইট তৈরির জন্য সমস্ত কাজ আপনার হয়ে করে দেবে। প্রতি ঘন্টায় এই মেশিনটি ১০০০ টি ইট তৈরি করতে পারে।

যে সমস্ত ব্যক্তিরা এই নতুন ব্যবসা করতে আগ্রহী, তাদের জন্য এসে গেছে সুসংবাদ। নতুনভাবে ব্যবসা করতে তাদের সাহায্য করবেন প্রধানমন্ত্রী।প্রধানমন্ত্রী রোজগার যোজনা, স্ব-কর্মসংস্থান পরিকল্পনা, মুদ্রা লোন সহ অন্যান্য যোজনা থেকে টাকা নিয়ে তারা এই ব্যবসা করতে পারেন। অর্থাৎ সাহায্য পাচ্ছেন সরকারের কাছ থেকেও। তবে এই ব্যবসা শুরু করার আগে এ ব্যাপারে অভিজ্ঞ লোকের পরামর্শ নেওয়া উচিৎ।