বেতন পরিকাঠামোয় ব্যাপক রদবদল করতে চলেছে মোদি সরকার, আপনি কি চাকরিজীবী?

৭৩ বছরের স্বাধীন ভারতে এই প্রথম এক নতুন ও অবাক করা নিয়ম লাগু করতে চলেছে মোদি সরকার। এখন গ্র্যাচুয়িটি প্রভিডেন্ট ফান্ড সহ অফিসের কাজের সময় সংক্রান্ত তিনটি বিল নিয়ে বিপুল পরিবর্তন করতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। আর সেই নিয়ম চালু হতে পারে আগামী পহেলা এপ্রিল থেকেই, এই নতুন নিয়মে কর্মীদের হাতে পাওয়া বেতনের পরিমাণ কমে যেতে পারে কিন্তু তার পরিবর্তে বৃদ্ধি পেতে পারে গ্র্যাচুয়িটি ও প্রভিডেন্ট ফান্ড জমার পরিমাণ। এই নতুন নিয়মে মনে করা হচ্ছে ভাতার পরিমাণ বেসিক পের চেয়ে ৫০% বেশী হবে। মোট কথা নতুন নিয়মের খসরায় বলা হয়েছে মোট বেতনের ৫০% বা তার বেশী রাখা হবে বেসিক বেতন।

নতুন নিয়মে মনে করা হচ্ছে বেসিক পের ওপর নির্ভর করেই বাড়ানো হবে পিএফ এর পরিমাণ কিন্তু সামরিক লাভ নেই বললেই চলে কারন হাতে পাওয়া বেতনের পরিমাণ কমে যাবে অনেকটাই। এতে অবসরের পর বৃদ্ধ বয়সে যাতে কোনো ধরনেরই অর্থাভাব না হয় সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত তবে এমন ভাবেই সেলারি চার্টকে বদলানো হবে যাতে কর্মীদের ওপরে কেমন ভাবে কোন প্রভাব না পড়ে।

এতে একটা বিশাল সুবিধা হবে , কোম্পানি গুলোকে সমপরিমাণ টাকা পি এফ ও গ্র্যাচুইটিতে জমা করতে হবে। এখানেই শেষ নয়, নতুন খসরা বিলে ওভারটাইমের কথা তুলে ধরা হয়েছে। যদি ১৫-৩০ মিনিট কাজ করা হয় তাহলে সেটাকে নতুন নিয়মে ওভারটাইম হিসেবে ধরা হবে। এদিকে কাজের সময় বাড়িয়ে ১২ ঘন্টা করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। সাথে বলা হয়েছে কোনো কর্মীকে টানা পাঁচ ঘণ্টার বেশি কাজকর্ম যাবেনা প্রতি ৫ ঘন্টা অন্তর আধঘণ্টা করে ব্রেক দিতে হবে।