লকডাউনে কতো পরিযায়ী শ্রমিক মারা গিয়েছেন, তথ্য নেই শ্রম মন্ত্রকের কাছে, জানালো কেন্দ্র

যখন থেকে লকডাউন, তার ঠিক কিছুদিন পরেই দেশের শ্রমিকদের মধ্যে একটা বিশাল ধরনের হাহাকার দেখা গেছে, যা কিনা খুবই বেদনাদায়ক। টানা ৩ মাসের লকডাউনে এই ধরনের অবস্থা সত্যি চোখে দেখা যায় না। কারণ তারা সবাই তাদের কাজ হারিয়েছিল, আর সেই কারণেই তারা বাড়ি ফেরা উদ্দেশ্যে রাস্তায় বের হয়েছিল, যার ফলে অনেক দূর্ঘটনার শিকার হয়েছেন তারা, আর তার ফলে প্রাণ হারিয়েছেন। কিন্তু এই নিয়ে কিছুই জানেন না শ্রম মন্ত্রক। এই কথা আজ বাদল অধিবেশনে জানালো কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সন্তোষ কুমার গাঙ্গোয়াড়।

গত কয়েক্ মাস পর চালু হয়েছে এই অধিবেশন। আজ সোমবার থেকে টানা ১৮ দিন চলবে এই বাদল অধিবেশন। এখন এই করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই এই অধিবেশন চালু করা হয়েছে ঠিকই কিন্তু তার সাথে বদল করা হয়েছে অনেক নিয়ম। এখন লোক সভার অধিবেশন হবে সকাল ৯ টা থেকে। আজ সেইভাবেই শুরু হয়েছে, ও তার পরে শোক প্রস্তাবের পরেই ১ ঘন্টা মুলতুবী করা হয় অধিবেশন। আর সেখানেই উঠে আসে এমন তথ্য।

আসলে কত রাজ্যে কত জন শ্রমিক বাড়িতে ফিরেছে, কতজন দূর্ঘটনায় আহত হয়েছে, সাথে কতজন প্রান হারিয়েছে, এমন কি ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছে কিনা সেটাও জানতে চাওয়া হয়। এই সব কোনো খবর নেই শ্রম মন্ত্রকের কাছে। এই সব নিয়ে অধিবেশন চলাকালীন শ্রম মন্ত্রকের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রীর কাছে জানতে চাওয়া হয়। আর সেই বিষয়েই এবার কেন্দ্রীয় শ্রম মন্ত্রী সন্তোষ গঙ্গোয়ার জানায়, ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা আসছেই না, কারণ কেন্দ্রের কাছে এই বিষয় কোনো সঠিক তথ্যই নেই।

কিন্তু এবার এই নিয়েই উঠছে প্রশ্ন, তাহলে কি পরিযায়ীদের নিয়ে কেন্দ্রের কোনও মাথা ব্যাথা নেই? তবে মন্ত্রী জানিয়েছেন, আসলে এই যে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্র, রাজ্য, পৌর, পঞ্চায়েত সবাই লড়াই করে চলেছে। কিন্তু এই নিয়ে সমস্ত রাজ্যদের সাহায্য করার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।।