অনাহার ও খিদের জ্বালা শেষ করে দিয়েছে ছোটবেলাকে, বয়স সাত হলেও ওজন মাত্র ৭ কেজি

ওভাবে একটা মানুষের শরীরে কিভাবে শেষ হয়ে যেতে পারে সেটা এই বাচ্চাটিকে না দেখলে হয়তো বোঝা সম্ভব নয় আমাদের পক্ষে। মাত্র ৭ কেজি ওজন একটি সাত বছরের বাচ্চার। অনাহারে খিদের জ্বালায় কুরে-কুরে তার শরীর এখন শেষ।ওই বাচ্চাটিকে ভর্তি করা হয়েছে ইয়েমেনের সানায় এক হসপিটালে। অনাহারে থাকতে থাকতে সাতটা বছর ধরে তার শরীরকে কুরে-কুরে খেয়েছে খিদে। বাচ্চাটির নাম ফাইড সামিম। সেরিব্রাল প‍্যালসিতে ভুগছে সেই সাত বছরের বাচ্চাটি।

চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় সেই সময়ে অবস্থা ছিল তার প্রায় মরণাপন্ন। চিকিৎসকদের কঠিন চেষ্টায় এবং তাদের যত্নে বাচ্চাটি এখন বিপদের থেকে মুক্ত হতে পেরেছে। ওই বাচ্ছাটির রোগের জন্য যা খরচ সেটি কখনোই বহন করতে পারবে না তার পরিবার, তবে আপাতত অনুদানের টাকায় তার চিকিৎসা চলছে।

ইয়েমেনের অবস্থা এখন যুদ্ধবিধ্বস্ত সেইজন্যে ওখানকার প্রায় ৮০ শতাংশ মানুষের দিন চলছে ত্রাণ এর উপর নির্ভর করে। দুর্ভিক্ষের পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। ছয় বছর ধরে চলছে সেই যুদ্ধ, লক্ষাধিক মানুষ মারা গেছে এখনো পর্যন্ত।

খাদ্য সংকটের জন্য চারিদিকে সেখানে তৈরি হয়েছে হাহাকার। এই অবস্থায় ওই বাচ্চাটিকে তুলে আনা হয় চিকিৎসা করার জন্য। আপাতত সে এখন সংকটমুক্ত রয়েছে। খাদ্যের অভাবে মানুষের পরিণতি কি হতে পারে সেটা হয়তো এই সাত বছরের বাচ্চাটিকে দেখে বোঝা যাবে।