শৈশব থেকে শাসন করা মায়েদের সন্তানদের ভবিষ্যৎ হয় উজ্জ্বল, বলছে সমীক্ষা

এখন প্রত্যেকের ঘরে একটি মাত্র সন্তান বলে প্রত্যেক বাবা মা তার সন্তানকে আদরে মানুষ করতে চান। তাই অনেক ভালো আমাকে দেখা যায় যে তার সন্তানকে ঠিকমতো শাসন না করতে।কিন্তু এমন অনেক বাবা-মা রয়েছেন যারা কঠোর ভাবে তার ছেলে মেয়েকে মানুষ করেন।অনেক বাবাকে দেখা যায় যে ছেলে মেয়েকে ঘর পরিষ্কার করতে, বাড়ির সমস্ত কাজ করতে এবং স্বাবলম্বী হবার জন্য শিক্ষা দেন। কিন্তু এমন অনেক বাড়িতে বড়রা মায়েদের ছেলেমেয়েকে শাসন করতে দেন না। কিন্তু তারা এটা বোঝেন না যে এটি করার ফলে ক্ষতি হচ্ছে তাদের সন্তানের দের।

বেশির ভাগ সফল মানুষের পেছনে তাদের মায়েদের অবদান অসামান্য মনে করা হয়। সুতরাং যদি আজকে আপনার মা আপনার প্রতি কঠোর হোন,তাহলে বিরক্তি প্রকাশ না করে তাকে মনে মনে ধন্যবাদ জানাতে ভুলবেন না। ইউনিভা’র্সিটি অব এসেক্সের একজন অধ্যাপক এরিকা রেসকন, একটি গবেষণা চালিয়ে জানতে পেরেছে,যে সকল মায়েরা তাদের ছেলে মেয়েকে কঠোরভাবে মানুষ করেছেন, তারা ভবিষ্যতে জীবনে সাফল্য অর্জন করতে পেরেছে। ২০০৪ সাল থেকে ২০১০ সাল অব্দি ১৫০০০ বাচ্চাদের ওপর এই গবেষণা চালানো হয়েছিল যাদের বয়স মাত্র ১৩ থেকে ১৪ বছর।

বিশেষজ্ঞদের মত অনুযায়ী, শুরু থেকে যদি কোন সন্তানকে পড়াশোনার ব্যাপারে তার বাবা-মা জোর দিতে পারে, তাহলে সেই সন্তান বড় হয়ে খ্যাতির চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছে যেতে পারে। যে সকল বাচ্চার মা উচ্চাকাঙ্ক্ষী ছিলেন তাদের বাচ্চারা বর্তমানে অধিক আত্মবিশ্বাসী এবং নিরাপদ।এছাড়াও জানা গেছে যে যে মায়েরা অতিরিক্ত কঠোর ছিলেন তাদের মেয়েদের মা হবার প্রবণতা অনেকটাই কম।

শক্ত এবং রাগী মায়ের সন্তানেরা দ্রুত গ্যাজুয়েট হতে পেরেছে এবং ভালো চাকরি করতে পারছে। শুনতে খুবই হাস্যকর মনে হলেও এই ঘটনাটি একেবারেই সত্যি। অনেক বাচ্চাদের কাছে তাদের মায়েরা সাক্ষাৎ যম। মায়ের এক কথা কে ভয় পায় তারা। তাহলে আপনি নিশ্চিন্ত হয়ে থাকুন, যদি আপনি কঠোর এবং রাগী মা হতে পারেন তাহলে আপনি আপনার সন্তানকে খুব তাড়াতাড়ি সঠিক এবং সাফল্যের রাস্তায় পৌঁছে দিতে পারবেন।