প্রথম পারিশ্রমিক ছি’লো ৫০০ টা’কা, কি’ভা’বে উ’পা’র্জ’ন করেছিলেন বিদ্যা বালান? জেনে নিন

বিদ্যা বালান, নামটা শুনলেই আমাদের চোখের সামনে ভেসে ওঠে এমন কিছু চরিত্র যা শুধুমাত্র হয়তো বিদ্যা বালান করতে পারতেন। কাহানি হোক অথবা ডার্টি পিকচার’ প্রত্যেকটি চরিত্রের সমানভাবে সাবলীল তিনি। তার আগামী ছবি শেরনী, মুক্তি পেতে চলেছে আর কিছুদিনের মধ্যেই। এই ছবির প্রচারে এসে ভার্চুয়ালি সাক্ষাত্কার দিতে গিয়ে তিনি পুরনো দিনের একটি স্মৃতি রোমন্থন করলেন। তিনি বললেন যে জীবনে প্রথম পারিশ্রমিক হিসেবে তিনি পেয়েছিলেন পাঁচশত টাকা। এই কাজের জন্য গাছের পাশে দাঁড়িয়ে একবার ঘুরে আসতে হয়েছিল তাকে।

বাংলা সিনেমা ভালো থেকো, সিনেমার মাধ্যম দিয়ে অভিনয় জগতে প্রবেশ করেছিলেন তিনি। এই সিনেমার কথা আমরা হয়তো অনেকেই জানিনা। পরিণীতা ছবিতে ডেভিউ করার পর থেকে তাকে চিনতে শুরু করেছি আমরা। এই সিনেমার জন্য তিনি প্রচুর পুরস্কারের পাশাপাশি পেয়েছিলেন জাতীয় পুরস্কার। তবে জীবনের প্রথম পারিশ্রমিকের গুরুত্ব একেবারেই আলাদা সকলের কাছে।

সেই স্মৃতি রোমন্থন করতে গিয়ে অভিনেত্রী জানান যে, একটি সরকারি ট্যুরিজম ক্যাম্পেইনের জন্য কাজ করেছিলেন তিনি। তিনি এবং তার বোনেরা সকলেই একইভাবে গাছের পাশে দাঁড়িয়ে একবার ঘুরে হাসিমুখে পোজ দিয়েছিলেন। প্রত্যেকে এই কাজের জন্য পেয়েছিলেন পাঁচশত টাকা। তবে এই কাজের জন্য প্রচুর আনন্দ পেয়েছিলেন তারা। পরিণীতা সিনেমার আগে তিনি হাম পাঁচ’ ধারাবাহিকে রাধিকার চরিত্র অভিনয় করতেন।

রাধিকা চরিত্রের জন্য তিনি প্রায় সারাদিন অপেক্ষা করার পর অডিশন দেওয়া সুযোগ পেয়েছিলেন। দেড়শ জন এসেছিল এই অডিশন দিতে। যদিও শেষ পর্যন্ত এই চরিত্রে বিদ্যা বালানকে বেছে নেওয়া হয়েছিল। এইভাবে কথা গুলি তাকে ভবিষ্যতের জন্য আরও বেশি তৈরি করেছে বলে তিনি মনে করেন। আগামী শুক্রবার অ্যামাজন প্রাইম ভিডিও তে মুক্তি পেতে চলেছে বিদ্যা বালান অভিনীত শেরনি। ছবিতে ফরেস্ট অফিসারের ভূমিকায় দেখতে পাওয়া যাবে বিদ্যা বালানকে। নিঃসন্দেহে আরো একটি দুর্দান্ত সিনেমা আমাদের উপহার দিতে চলেছেন বিদ্যা বালান।