স’ম্প্র’তি আমেরিকা’য় ৯/১১ হা’ম’লা’র একটি ত’দ’ন্ত রি’পো’র্ট প্র’কা’শ ক’র’লো FBI

সম্প্রতি আমেরিকায় ৯/১১ হামলার একটি তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করলো FBI

আমেরিকায় ৯/১১ হামলার ঘটনার সেই স্মৃতি আজও ভোলেনি সারা পৃথিবী। সেই দুঃস্বপ্নের মতো ঘটনা আজ এত বছর বাদেও সারা পৃথিবীর মানুষকে তাড়া করে বেড়ায়। প্রায় কুড়ি বছর বাদে সেই ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার রিপোর্ট পেশ করলো ফেডারেল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন। সেই ভয়াবহ ঘটনার পর অনেক তদন্ত শুরু হয় ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে। তার মধ্যে সম্প্রতি একটি তদন্ত রিপোর্ট শনিবার প্রকাশ করেছে আমেরিকার গোয়েন্দা সংস্থা।

এই রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে, এফবিআই প্রকাশিত তথ্যে দাবি করা হয়েছে, ৯/১১ হামলায় সৌদি দূতাবাসের এক কর্মী ও এক সৌদি গুপ্তচরের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। এই তথ্য প্রকাশ্যে আসার পরপরই সারা বিশ্ব জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। তদন্তের রিপোর্টে জানা গিয়েছে, ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে বিমান হামলাকারীদের সাহায্য করেছিল সৌদি দূতাবাস কর্মী এবং ওই গুপ্তচর। শুধু তাই নয়, হামলাকারীদের থাকা, খাওয়া এমনকি নির্বিঘ্নে যাতায়াতেরও ব্যবস্থাও করে দিয়েছিল এই অভিযুক্তরা।

ওই নথিতে জানানো হয়েছে ৯/১১এর ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা আগে থেকেই জানতেন সৌদি আরবের ওই দুই নাগরিক। এরা হামলার আগে হামলাকারীদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখত বলে জানা গিয়েছে। এদের মধ্যে একজন আবার লস অ্যাঞ্জেলেসের সৌদি দূতাবাসের কর্মী। বিমান অপহরণকারীদের নানারকম রসদ জুগিয়ে সাহায্য করেছিল ওই ব্যক্তি। অপর আরেক সন্দেহভাজন ব্যক্তি ওমর আল বায়ুমি সৌদির ছাত্র ছিল। সে গুপ্তচর হিসেবে কাজ করেছিল।

যদিও সৌদি সরকার এই সমস্ত দাবি খারিজ করে দিয়েছে। আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের একটি এগ্‌জিকিউটিভ অর্ডারের পরিপ্রেক্ষিতে ৯/১১ হামলার ২০ বছর পূর্তিতে শনিবার এফবিআই ওই তদন্তের নির্দেশ দেয়। উল্লেখ্য, সম্প্রতি ওই হামলায় নিহত ব্যক্তিদের পরিবারের সদস্যরা বাইডেনকে একটি চিঠি লিখে তাকে নিহতদের শ্রদ্ধা জানাতে নিউ ইয়র্ক শহরের ‘গ্রাউন্ড জিরো’তে না আসার কথা বলেন। কারণ তিনি নিহতদের পরিবারকে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা রাখতে পারেননি। সেই কারণেই নড়েচড়ে বসেছে বাইডেনের প্রশাসন। তারপরেই মিলেছে এমন তথ্য।