ভোজ্য তেলের দাম বৃদ্ধির পিছনে রয়েছে ক’রো’না ভাইরাস, জানুন কারণ

করোনাকালে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম মাত্রাতিরিক্ত বেড়েছে। জ্বালানি তেলের পাশাপাশি ভোজ্যতেলের দামও ক্রমেই যেন আকাশ ছুঁয়ে ফেলছে। এই পরিস্থিতিতেই আবার দেশের বেশ কয়েকটি রাজ্যে করোনার নতুন স্ট্রেন নতুন করে হামলা চালাচ্ছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। এদিকে করোনার দরুন এমনিতেই বিগত কয়েক মাসে ভোজ্যতেলের দাম প্রায় ৬০ শতাংশ বেড়েছে বলেই জানাচ্ছে একটি সমীক্ষার রিপোর্ট।

সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষার রিপোর্ট থেকে জানা গেল, গত প্রায় ১০ মাস আগে ২০২০ সালের এপ্রিলে গ্রেড এক সূর্যমুখী তেলের এক লিটারের দাম ছিল ৯০ টাকা। করোনা পরবর্তী সময়ে সেই দাম হয়েছে ১৪০ টাকা। বাদাম তেল ও পাম ওয়েলের দামও গত ১০ পূর্বে যথাক্রমে ৯৫ ও ৭৫ টাকা করে ছিল। এখন সেই দাম বেড়ে ১৫০ ও ১১৫ টাকা হয়েছে।

তবে ভোজ্যতেলের দাম কিন্তু এখানেই থেমে থাকবে না। সমীক্ষার ওই রিপোর্টে জানানো হয়েছে, যে হারে দাম বাড়ছে তাতে আগামী তিন মাসে এই দাম আরো ৩০ টাকা বেড়ে যেতে পারে। সমীক্ষার ওই রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, বর্তমান সময়ে ভারতের বাজারে প্রায় ২ কোটি টন পাম, এক কোটি টন সূর্যমুখী ও ২ কোটি টন বাদাম তেলের ঘাটতি দেখা দিয়েছে।

এর প্রধান কারণ হলো, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ বিশ্বের অন্যান্য যে দেশগুলি থেকে এতদিন ভারত ভোজ্যতেল আমদানি করতো, সেই দেশগুলি থেকে তেল রপ্তানি বন্ধ হয়েছে। এদিকে আবার করোনার দরুন ভারতেও উৎপাদন বন্ধ। কৃষকদের মধ্যে অনেকেই ভোজ্যতেলের জন্য ফসল উৎপাদন করতে চাইছেন না। যার ফলে অস্বাভাবিক হারে বেড়েই চলেছে ভোজ্যতেলের দাম।