এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে হত্যার ষড়যন্ত্র, উড়ো চিঠিতে তুলকালাম

ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েকের জীবন সংকট দেখা দিয়েছে। দুষ্কৃতীরা তাকে হত্যা করার পরিকল্পনা করছে! সম্প্রতি কোনো এক অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি এই মর্মে তাঁর বাসভবনে একটি সতর্ক বার্তা প্রেরণ করেছেন। ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে সম্প্রতি ইংরেজি মাধ্যমে যে চিঠি প্রেরণ করা হয়েছে সেখানে জানানো হয়েছে এই ষড়যন্ত্রের মূল চক্রী যিনি তিনি মহারাষ্ট্রের নাগপুরে বসে নবীন পট্টনায়ককে হত্যা করার পরিকল্পনা করছেন।

শুধু তাই নয়, নবীন পট্টনায়ককে হত্যা করার জন্য মহারাষ্ট্রের নাগপুর থেকেই সুপারি কিলার নিয়োগ করা হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে ওই পত্রে। এদিকে এই উড়োচিঠি পেতেই ঘটনার তদন্তে নেমেছে ওড়িশা পুলিশ। বৃহস্পতিবার ওড়িশার প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, চলতি মাসের পাঁচ তারিখে মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে এ সংক্রান্ত চিঠি প্রেরণ করা হয়েছে। চিঠি পাওয়ার পর ঘটনার তদন্তের ভার পেয়েছেন রাজ্যের বিশেষ স্বরাষ্ট্রসচিব ড. সন্তোষ বালা পুলিশ ও গোয়েন্দা বিভাগের ডিজি এবং ভুবনেশ্বরের পুলিশ কমিশনার।

প্রশাসনিক অধিকর্তারা এও জানিয়েছেন, নবীন পট্টনায়ককে খুনের জন্য যাদের নিয়োগ করা হয়েছে তাদের প্রত্যেকের কাছে একে-৪৭ ও সেমি অটোমেটিক পিস্তল-সহ একাধিক অত্যাধুনিক অস্ত্র শস্ত্র রয়েছে। চিঠির সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, হামলাকারীরা যেকোনো মুহূর্তে হামলা চালাতে পারে। অতএব ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী যেন সর্বদা সাবধানে থাকেন। এমন চিঠি পেয়েই ওড়িশার প্রশাসনিক মহলে রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, উড়িষ্যার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়ক অত্যন্ত দক্ষ হাতে রাজ্য পরিচালনা করেন। দক্ষ প্রশাসকের পাশাপাশি স্বচ্ছ রাজনৈতিক হিসেবেও তার সুনাম রয়েছে। দেশের অন্যান্য রাজনৈতিকদের কাছে তিনি দৃষ্টান্তস্বরূপ, এ কথা অনেকেই বিশ্বাস করেন। সেই নবীন পট্টনায়ককেই কেউবা কারা হত্যা করার পরিকল্পনা করছে, একথা প্রকাশ্যে আসতে স্বভাবতই রাজনৈতিক মহলে বেশ চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।