জিভের রং ব’লে দে’বে আপনি ক’ত’টা স্বা’স্থ্য’ক’র, আপনারটা আ’জ’ই চেক ক’রে দেখুন

আপনি হয়তো জানেন না, আপনার জিহ্বার রং আপনার স্বাস্থ্য সম্পর্কে অনেক কিছু বর্ণনা করে দিতে পারে। জিহ্বার সামান্য কিছু পরিবর্তন আপনার শরীর সম্পর্কে অনেক কিছু পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিতে পারে। দন্তরোগ বিশেষজ্ঞ এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন যে, জিভ দেখে প্রাথমিক পর্যায়ে রোগ নির্ণয় যদি করতে পারেন তাহলে বড়োসড়ো রোগ থেকে সহজে বাঁচা যায়। ভালোভাবে দাঁত এবং জিভ পরিষ্কার করলে আপনার মুখে কোন ব্যাকটেরিয়া জমতে পারে না। চলুন জেনে নেওয়া যাক কি কি পরিবর্তন আপনি লক্ষ্য করতে পারবেন

হালকা গোলাপী: জিভের রঙ যদি হালকা গোলাপি হয় তাহলে এটি খুবই স্বাভাবিক। এটিকে স্বাস্থ্যকর জিহবার রঙ হিসেবে ধরে নেওয়া হয়।

কালো: চেঞ্জ মেকার হলে জিভের রং অনেক সময় কালো হয়ে যেতে পারে। এমতাবস্থায় আগে থেকেই আপনাকে সিগারেট ছাড়তে হবে।

হলুদ: হজমের সমস্যা থাকলে অথবা লিভার অথবা পেটের সমস্যা থাকলে জিভের রং হলদে হয়ে যেতে পারে।

বাদামি: অতিরিক্ত ক্যাফেইন জাতীয় খাবার খেলে অথবা কফি খেলে জিভের রং বাদামী হয়ে যেতে পারে। অনেক সময় দীর্ঘ দিন ধরে ধূমপান করলে হালকা বাদামি আস্তরণ পড়ে যেতে পারে জিভের উপর।

লাল: ফলিক এসিডের সমস্যা থাকলে জিভের রং অনেক সময় লাল হয়ে যেতে পারে।

নীল: হৃদপিন্ডের কোন সমস্যা থাকলে জিভের রং অনেক সময় নীল হয়ে যেতে পারে। কোন কঠিন অসুখের নির্দেশ দেয় এই নীল রং।

সাদা: ডিহাইড্রেশন হলে অথবা ওরাল ইনফেকশন হলে অনেক সময় যে সাদা হয়ে যেতে পারে। অবিলম্বে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে আপনাকে।