যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকতে সেনাকে নির্দেশ দিলেন চীনা প্রেসিডেন্ট

এবার হয়ত শেষ রক্ষা হল না, কারণ এমন ধরনের বার্তা শোনা গেছিল জুলাই মাসের শেষের দিকে। এবার ফের সেই বার্তাই উঠে আসল তার মুখে। চিনের পিপল লিবারেশন আর্মিকে সিপিসির সর্বোচ্চ নেতা শি জিনপিং এর বার্তা, এবার প্রস্তুত হন যুদ্ধের জন্য। তিনি এই কথা যে বলেছেন সেটা চিনের একটি সংবাদ মাধ্যম জিহুয়ার দ্বারাই জানা গেছে। সেখান থেকে আরও জানা গেছে এই শি জিনপিং গতকাল বুধবার গেছিলেন শেনঝেন প্রদেশের একটি স্পেশাল ইকোনোমিক জোনের অনুষ্ঠানে, যেখানে ৪০ বছর পূর্তি হয়েছে। আর তার পরেই তিনি সেখান থেকে যান দক্ষিণ চিনের গুয়ানডং এর সেনাদের বেস ক্যাম্পে।

আর সেখানে গিয়েই নাকি তিনি এই বার্তা দেয় তাদের উদ্দেশ্যে।এখন সারা বিশ্ব সাক্ষী চিনের সাথে আমেরিকার ও ভারতের কেওম ধরনের সংঘাত চলছে, আর এর মধ্যেই তার এই বার্তা পরিস্থিতিকে আরও উত্তপ্ত করে তুলছে বলেই মনে করছে কূটনৈতিকেরা। এখন ভারত চিন সীমান্ত যুদ্ধ। পূর্ব লাদাখ নিয়ে কোনো দেশ পিছু হঠতে রাজি নয়। এই পরিস্থিতি নাকি ৬২ সালের থেকেও বেশী উত্তেজনা পূর্ণ। তবে আগের বারের মতো ভারতও আর পিছু হটতে রাজি না, কারণ চিনকে সব দিক থেকে জব্দ করতেই একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করে চএলছে।

এবার ভারতের পরে যদি আমেরিকার দিকে যদি ঘুরে দেখা যায় তাহলে দেখা যাবে তাইওয়ানকে আমেরিকা সদ্য উচ্চক্ষমতা যুক্ত সমরাস্ত্র বিক্রি করেছে। আমেরিকার তরফ থেকে জানানো হয়েছে তারা উচ্চক্ষমতা যুক্ত রকেট বিক্রি করেছে। আর এতেই একেবারে তেলে বেগুনে জ্বলে উঠেছে বেজিং। কারণ তাইওয়ান ও বেজিং এর লড়াই সর্বজনবিদিত। তবে এর মধ্যেই আমেরিকা কেনো সমরাস্ত্র বিক্রি করছে তাইওয়ানকে সেটা নিয়েও চটে খুন বেজিং সরকার। তাই চিনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান জানিয়েছেন, অবিলম্বে রকেট বিক্রির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হোক, কিন্তু আমেরিকা যে শোনার পাত্র নয় সেটা সবাই জানে।