কনকনে ঠান্ডায় জমে গেলো রাজধানী, তাপমাত্রা নামলো ১.১ ডিগ্রীতে

বর্ষশেষে প্রবল ঠাণ্ডায় কাঁপছে উত্তর ভারত। রাজধানী শহরের তাপমাত্রার পারদ নামতে নামতে ইতিমধ্যেই ১.১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছে গিয়েছে। দিল্লিসহ সারা উত্তর ভারতের অন্যান্য রাজ্যগুলিতে একই অবস্থা চলছে। তবে বছরের প্রথম দিনেই দীর্ঘ ১৫ বছরের রেকর্ড ভেঙে দিলো রাজধানী দিল্লি। দিল্লির সফদরজং এলাকায় এদিন বিগত ১৫ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, বিগত বেশ কয়েকদিন ধরেই রাজধানী শহরের তাপমাত্রা নিচের দিকে নামছে। বর্ষশেষের শেষ রাতেও প্রবল ঠান্ডায় কেঁপেছে দিল্লি। বছরের প্রথম দিন সকালেও কুয়াশায় আচ্ছন্ন ছিল দিল্লি শহরের রাস্তা। কুয়াশার দরুন রাস্তার দৃশ্যমানতা স্বভাবতই কম ছিল। যার ফলে দিল্লির সকালে রাস্তায় পথচারীদের বেশ অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ৮ই জানুয়ারি দিল্লির তাপমাত্রা সর্বনিম্ন ০.২ ডিগ্রী সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছিল। কিন্তু চলতি বছরের প্রথম দিনেই দিল্লির তাপমাত্রা যেখানে ১.১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছেছে সেখানে আগামী দিনেরতাপমাত্রা আরও নিচের দিকে নামতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন দিল্লির বাসিন্দারা। উল্লেখ্য গত বছরের জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে দিল্লির তাপমাত্রা ২.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছে যায়। চলতি বছরে এখনই সমস্ত রেকর্ড ভেঙে ফেললো দিল্লির তাপমাত্রা।

আইএমডি সূত্রে খবর, আগামী ৪৮ ঘণ্টায় দিল্লির তাপমাত্রা এরকমই থাকবে। তারপরেও অবশ্য ঠান্ডা বাড়বে বৈ কমবে না। দিল্লির পাশাপাশি উত্তর ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্যে শৈত্যপ্রবাহের সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। পঞ্জাব, হরিয়ানা এবং দিল্লির সংলগ্ন এলাকা আগামী ২৪ ঘণ্টায় ঘন কুয়াশায় ঢাকা থাকবে। কুয়াশার পাশাপাশি প্রবল দূষণেও ঢেকে রয়েছে দিল্লির বাতাস। ফলে জোড়া সমস্যায় ভুগছে রাজধানী শহর।