ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করা ছেলে, বাড়ির ফ্যান ঠিক করতে না পারায় মার্কশিট ছিড়ে ফেললো মা

প্রত্যেক বাবা-মায়ের নিজের সন্তানদের নিয়ে অনেক বড় বড় স্বপ্ন থাকে। সন্তানদের কোনোরকম ব্যর্থতা তারা যেন ঠিক সহজভাবে মেনে নিতে পারেন না। তাই অভিভাবকেরা চেষ্টা করেন যাতে নিজেদের যতোটুকু সামর্থ্য আছে তার সবটা দিয়ে ছেলে মেয়েকে সফল করা যায়। তবে তার পরেও যদি সন্তানকে ব্যর্থ দেখতে হয় তাহলে তা মেনে নিতে পারেন না অনেকেই।

যেমনটা ঘটেছে এক ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়ার সঙ্গে। ঘরের খারাপ হয়ে যাওয়া ফ্যান সারাতে না পারার অপরাধে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করা ছেলের সার্টিফিকেট ছিঁড়েই ফেলে দিলেন মা। সদ্যই শীত পেরিয়ে গরম আবহাওয়া দেখা দিয়েছে দেশে। গরমকালে ফ্যান ছাড়া এক মুহূর্তও যেন কল্পনাই করা যায় না। তাই ফ্যান খারাপ হয়ে গেলে স্বভাবতই মাথা গরম হয়ে থাকবে বাড়ির মানুষদের।

তবে যে বাড়িতে ফ্যান খারাপ হয়ে গিয়েছে সেই বাড়িতেই যদি কোনো ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়া থাকে তাহলে কিছুটা হলেও নিশ্চিন্ত হওয়া যায়। কারণ বাড়ির ইলেকট্রিকের যন্ত্রপাতি সেই সারিয়ে দিতে পারবে, এমনটাই আশা করেন বাড়ির লোক। এক্ষেত্রে কিন্তু তেমনটা হয়নি। অবশ্য ফ্যান খারাপ হয়ে যাওয়ার পর কিন্তু ফ্যান সারাই করার চেষ্টা চালিয়েছিল সেই ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার ছেলেটি।

তবে সে ব্যর্থ হয়েছে। তাই ফ্যান সারাই করতে শেষমেষ ইলেকট্রিশিয়ানের শরণাপন্ন হন গৃহকর্ত্রী। এদিকে ইলেক্ট্রিশিয়ান এসেই কিছুক্ষণের মধ্যেই ফ্যান সারিয়ে দিয়ে গেলেন। এতে মায়ের রাগ যেন সপ্তমে চড়লো। ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার ছেলে যখন বাড়ির ফ্যানটাও সারাতে পারলো না তখন তার সমস্ত রাগ গিয়ে পড়লো ছেলের সার্টিফিকেটগুলির উপর। রাগের বশে সেই সার্টিফিকেট ছিঁড়েই রাগ শান্ত করেছেন তিনি।