বড়ো পাওনা, ২০২২-এ ভারতেই আয়োজন করা হবে Under-19 মহিলা বিশ্বকাপ

করোনা আবহে একের পর এক বাতিল হতে চলেছে বিভিন্ন খেলা। সেটা আই পি এল থেকে বিশ্বকাপ। অবশ্য আই পি এল অন্য দেশে এখন আয়োজন করা হয়েছে, কিন্তু সম্পৃক্ত খেলা তো নির্দিষ্ট জায়গা ছাড়া করা সম্ভব নয়। তাই বাতিলের রাস্তাই বেছে নিতে হবে। এখানেই এবার সেটা বোঝা গেল ফিফা অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বখাপ ২০২১আয়োজন করার কথা ছিল ভারতের কিন্তু পরিস্থিতি এখন এতটাই জটিল সেটিকে পিছিয়ে নিয়ে যাওয়া হল ২০২২ সালে। আসলে ভারতের মাটিতে মহিলা ফুটবল বিশ্বকাপ সত্যি নতুন কিছু। ভারতের মাটিতে জনপ্রিয় সব থেকে ক্রিকেট, কিন্তু সেখানেই যখন অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বকাপের ভেনুউ হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছিল তার দেখে সবার মনে একটা খুশির জোয়ার দেখা গিয়েছিল।

পুরুষ অনুর্ধ্ব ১৭ বিশ্বকাপের পরেই হওয়ার কথা ছিল অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বকাপ। যার কাজ অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছিল , সমস্ত মাঠ পরিদর্শন থেকে শুরু করে সমস্ত খেলার স্হান নির্বাচনও হয়ে গিয়েছিল। সব খেলায়াড়দের প্রস্তুতি ছিল একেবারেই তুঙ্গে, কোনোভাবেই তারা এই সুযোগ ছাড়ার জন্য প্রস্তুত ছিল না। কিন্তু যাকে বলে বিনা মেঘে বজ্রপাত। আর সেই কারণেই সমস্ত পরিকল্পনা একেবারে ভেস্তে। কারণ এই করোনা। সারা বিশ্ববাসী একেবারে ভয়ে আতঙ্কে জর্জরিত হয়ে পরে। আর সেই কারণেই খেলোয়াড়দের প্রস্তুতির সাথে সাথে বন্ধ হয়ে যায় সব রকম আয়োজন।

কারণ এই বিশ্বকাপ হওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালের নভেম্বর মাসে, কিন্তু সেই সময় দর্শক কোনোভাবেই থাকবে না মাঠে, আর সেই কথা মাথায় রেখেই ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন আলাপ করে ফিফার সাথে, তারপরে সেটাকে বদল করে করা হয় ফেব্রুয়ারি মাসে। সেই হিসেবেই চলছিল প্রস্তুতি। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতি এটাই বুঝিয়ে দিয়েছে কোনোভাবেই ফেব্রুয়ারি মাসে খেলা সম্ভব নয়। তাই এবার প্রফুল্ল প্যাটেল ফিফাকে প্রস্তাব দিয়েছে এই ২০২১ এর ফেব্রুয়ারি মাসে না করে মহিলা বিশ্বকাপকে পিছিয়ে ২০২২ করা হোক। আর এটা ফিফার তরফ থেকে মেনে নেওয়া হয়েছে অনেকটাই, যার ফলে কিনা এখন এই সিদ্ধান্তে অনেকেই আশাবাদী।।