চীনের শেষের শুরু, আরো একটি ধাক্কা, 5G পরিষেবা নিয়ে বৈঠক মোদির মন্ত্রিসভায়

ভারত-চীন সংঘর্ষের পাল্টা হিসেবে ভারতের তরফ থেকে চীনের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই নানা পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছে ভারত। গতকাল ৫৯টি চিনা অ্যাপ ভারতে বাতিল করেছে কেন্দ্র সরকার।এর আগেই বন্ধ হয়েছে চীনকে দেওয়া মনোরেল এর রেকের বরাত। এবার 5G পরিষেবা ক্ষেত্রে চীনকে বয়কট করার কথা ভাবছে ভারত।

ভারতে 5G পরিষেবা ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি সরবরাহ করতে আগ্রহী চীনের সংস্থা হুয়াই। উদ্ভূত ভারত চীনসংঘর্ষের জেরে এবার সেই কোম্পানির সাথে ভারত কোন রকম বাণিজ্যিক সম্পর্ক রাখবে কিনা সে বিষয়ে আলোচনায় বসেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর, বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গয়াল এবং যোগাযোগমন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিমধ্যেই ২০২১ সাল অব্দি হুয়াইএর সমস্ত সরঞ্জাম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ভারতে আপাতত পাঁচ বছরের জন্য পিছিয়ে গেছে 5Gএর নিলাম।গত বছর ভারতে 5G পরিষেবা প্রকল্পে অংশগ্রহণ করার জন্য হুয়াই কে অনুমতি দেয়া হয়েছিল। সূত্রের খবর, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তরফ থেকে চিনা কোম্পানিকে বাতিল করতে বারবার দাবি জানানো হচ্ছে।

বিশেষত্ব ভারতে চীনা অ্যাপ বাতিল করার পর নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। চীনের বিদেশ মন্ত্রকের তরফ থেকে ঝাও লিজিয়ান জানিয়েছেন,”ভারতের এই পদক্ষেপে যথেষ্টই উদ্বিগ্ন আমরা।যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পরিস্থিতি যাচাই করে দেখছে চীন।”