জঙ্গিদের আঁতুরঘর পাকিস্তানেই আতঙ্কবাদী হামলা, জোড়া হামলায় নিহত ১৪ পাক সেনা

পাকিস্তানে জোড়া জঙ্গি হামলার কবলে পড়ে ১৪ জন পাকিস্তানি সেনা জওয়ানসহ অন্ততপক্ষে ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। পাকিস্তানি সংবাদপত্র “ডন” এর রিপোর্ট অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার পাকিস্তানি সেনা এবং সংস্থার নিজস্ব নিরাপত্তা রক্ষীদের উপস্থিতিতে ওজিডিসিএল তেল সংস্থার কর্মীদের গদর থেকে করাচি নিয়ে যাওয়ার সময় সেনা কনভয় লক্ষ্য করে আক্রমণ করে বসে দুষ্কৃতীরা।

পাক সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, গদর জেলার ওরমারায় কোস্টাল হাইওয়ের উপরে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। উল্লেখ্য, তার আগের দিনই অর্থাৎ বুধবার উত্তর ওয়াজিরিস্তানের আদিবাসী অধ্যুষিত জেলায় দুষ্কৃতীদের আইইডি বিস্ফোরণের মুখে পড়ে প্রাণ হারান ছয় জন পাক সেনা কর্মী। এই হামলার দায় স্বীকার করেছে কুখ্যাত জঙ্গি সংগঠন তেহরিক-ই-তালিবান। পাকিস্তানি ছেলেদের উপর একের পর এক জঙ্গি হামলায় স্বভাবতই সেখানে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

গদর জেলার ওরমারায় কোস্টাল হাইওয়ের উপরে যে হামলা চালানো হয়েছে তাতে পাকিস্তানের ফ্রন্টিয়ার কর্পসের সাত জওয়ান এবং তেল সংস্থার সাত নিরাপত্তা কর্মী প্রাণ হারিয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। প্রাক প্রশাসনের দাবি, এদিনের জঙ্গী হামলার উপযুক্ত প্রত্যুত্তর দিয়েছে পাকিস্তানের নিরাপত্তা রক্ষীরা। তাদের তৎপরতায় তেল সংস্থার কর্মীদের নিরাপদ স্থান পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

শুধু তাই নয়, পাকিস্তানি সেনা জওয়ানদের পাল্টা আক্রমণে বহু জঙ্গী প্রাণ হারিয়েছে বলেও দাবি করা হচ্ছে। পাক সরকারের অভিযোগ, দেশের শান্তি, স্থিতাবস্থা নষ্ট করতে এবং বালোচিস্তানের অর্থনৈতিক উন্নতির পথে বাধা দিতেই এহেন হামলা চালিয়েছে জঙ্গিরা। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ইতিমধ্যেই মৃত সৈনিকদের উদ্দেশ্যে শোক জ্ঞাপন করেছেন।