অবসাদের কারণে অসুস্থ শরীর নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন সুশান্ত, বিরাট তথ্য দিলো মনোবিদ

সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে এখনও তদন্ত চলছে। গত শুক্রবার মুম্বাই পুলিশ সুশান্তের দুই মনোবিদকে তলব করেছিল। তাঁরা জানিয়েছেন, সুশান্ত বহুদিন ধরে অবসাদে ভুগছিলেন এবং চিকিৎসাও করাচ্ছিলেন। ২০১৯ সালের অক্টোবর মাসে অবসাদে ভুগে গুরুতর অসুস্থ হয়ে সুশান্ত ১ সপ্তাহ হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। তিন ৫ জন মনোবিদদের পরামর্শও নিয়েছিলেন। এদের মধ্যেই দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মুম্বাই পুলিশ। গড়ে ঘন্টাখানেক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাঁদের। একজন মনোবিদ জানিয়েছেন, সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর এক বন্ধুর রেকমেন্ডেশনে সুশান্তের চিকিৎসা করছিলেন তিনি।

সেই সময় সুশান্ত প্রচন্ড অবসাদে থাকতেন এবং কোনও একটি বিষয় নিয়ে খুব আতঙ্কে ছিলেন। চিকিৎসক জানিয়েছেন, সুশান্তের মধ্যে যে উপসর্গগুলি দেখা গিয়েছিল সেগুলি হল, পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমের অভাব, অ্যাংজাইটি, কোনও একটি বিষয়ের প্রতি সবসময় সন্দেহপ্রবণ থাকা। তাঁর বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী সুশান্তের কাউন্সেলিং এর সময়ে সবসময় সঙ্গে থাকতেন। মুম্বাই পুলিশ কাউন্সেলিং সংক্রান্ত সমস্ত প্রেসক্রিপশন এবং মেডিকেল নোটস মনোবিদদের কাছ থেকে চেয়েছে। মনোবিদরা সুশান্তের অবসাদ সম্পর্কে আরও কিছু তথ্য জানিয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে। তবে সেও তথ্যগুলি সংবাদমাধ্যমের সামনে পুলিশ প্রকাশ করেনি। জানা গিয়েছে, চিকিৎসকরা অন্যান্য মনোবিদদের সঙ্গেও এই বিষয়ে আলোচনা করবেন।

গত ১৪ জুন গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত। ঠিক কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন, তা এখনও অজানা। তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। অনেকেই বলছেন, সুশান্ত সিং রাজপুতকে পরিকল্পনা করে খুন করা হয়েছে। তাঁর মৃত্যুর ১ মাস পার হয়ে গিয়েছে, কিন্তু তাঁকে এখনও ভুলতে পারেনি দেশবাসী। সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত করতে এখন পর্যন্ত সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে সহ ৩৫ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে বান্দ্রা পুলিশ। সুশান্তের শেষ ছবি ‘দিল বেচারা’য় সুশান্তের বিপরীতে অভিনয় করেছেন সঞ্জনা সাঙ্ঘি, তাঁকেও কয়েক ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ। সুশান্ত সিং রাজপুতের ‘দিল বেচারা’ ছবিটি মুক্তি ২৪ জুলাই। পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালিকেও জেরা করেছে বান্দ্রা পুলিশ।