রোগীর পাশেই পড়ে রয়েছে করোনা আক্রান্তের মৃতদেহ, প্রকাশ্যে অস্বস্থিকর ভিডিও

এবার করোনা আবহের মধ্যেই আরও এক ভয়ঙ্কর ছবি সামনে আসলো, যা দেখে আতকে ওঠার মতো। এটাও করোনা সংক্রান্তই। আসলে সম্প্রতি একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে, সেই ভিডিও টুইট করেছেন মহারাষ্ট্রের বিজেপি বিধায়ক নিতীশ রানে। তিনি ৫৭ সেকেন্ডের একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন, আর সেটা স্যোশাল মিডিয়ায় আসতেই একেবারে হুলুস্থূল কান্ড। সবাই সমালোচনা শুরু করেছে, সেখানে দেখা যাচ্ছে হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে রোগীদের সাথে আশে পাশের বিছানায় পরে আছে মৃতদেহ, আর সেই সব মৃতদেহ প্লাস্টিকের ব্যাগে মোড়ানো।

কোনো কোনো মৃতদেহ আছে রোগীর পায়ের কাছে, কোনো কোনো মৃত দেহ আছে পাশে। একেবারে আতকে ওঠার মতো ব্যাপার। এর মধ্যেই পরিবার আসছে রোগীর সাথে দেখা করছে, রোগীকে রাখা হয়েছে অক্সিজেন মাস্ক পরিয়ে। সেই বিজেপি বিধায়ক টুইট করে লিখেছেন, ঘটনাটি মহারাষ্ট্রের সিওন হাসপাতালে। রোগীর পাশেই শুয়ে আছে মৃতদেহ। ঘটনাটি খুবই সাংঘাতিক। এই হল প্রশাসনের দায়িত্ব, যেটা খুবই লজ্জাজনক।

তবে এই ভিডিওই তার নিজের কাজ করে দিয়েছে, কারণ যখন ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায় তখন সেই হাসপাতালের ডিন প্রমোদ ইঙ্গালে জানিয়ে দিয়েছেন, আসলে মৃতের পরিবার দেহ নিতে অস্বীকার করছে। তাই সেখানে রাখা হয়েছিল, তবে এখন সেই সব সড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।এখানেই শেষ না, কারণ হাসপাতালের তরফ থেকে আরও বলা হয়েছে যে, করোনার মর্গে মৃত দেহ রাখার জায়গা ১৫ টি। তার মধ্যে ১১ টি রাখা হয়েছে, বাকি গুলো এই কারণেই বাইরে রাখা হয়েছে, কিন্তু চিন্তার কোনো কারণ নেই।

আসলে সব মৃত দেহ আছে প্যাকেটে মোড়ানো। আর সেই কারণেই সংক্রমণ হওয়ার কোনো কারণ নেই। এদিকে আসল মর্গে রাখা হয় নি, কারণ সাধারণ মৃত্যুর সাথে করোনার মৃত দেহ যদি গুলিয়ে যায়, সেই কারণে। কিন্তু তাও সবার মুখে একই কথা, দেশের মধ্যে যে রাজ্যের আক্রান্তের সংখ্যা ও মৃত্যুর সংখ্যা সব থেকে বেশী, সেখানেই এমন গাফিলতি? তা একেবারে মেনে নেওয়া যায় না।।