বানরের ক’রোনা রোধে ভারতের তৈরি COVAXIN প্রয়োগে মিললো সাফল্য

এবার যেখানে বিশ্বের তাবড় তাবড় ভ্যাক্সিন সংস্থা কোনো না কোনো ঝামেলার সম্মুখীন হচ্ছে তখন গিয়ে দেখা যাচ্ছে ভারত অনেকটাই এগিয়ে। আসলে ভারত বায়োটিকের তরফ থেকে এবার একটি সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে, সেটা হল তারা ভ্যাক্সিন ট্রায়ালের প্রথম ধাপ অতিক্রম করেছে, সেটাও আবার সফলতার সাথে। ভারত বায়োটিকের তরফ থেকে এই কথা জানানো হয়েছে যে তাদের তৈরী কোভ্যাক্সিন পশুর শরীরে সফল। আর যা কিনা একটি চ্যালেঞ্জ ট্রায়ালের মাধ্যমেই প্রকাশ হয়েছে।

এখানেই শেষ না, তারা জানিয়েছে, এই ভ্যাক্সিন লাইভ ভাইরাল চ্যালেঞ্জ মোডে সফলতা পেয়েছে। যাদের দেহে এই ভ্যাক্সিনের ট্রায়াল করা হয়েছে, তাদের কিন্তু শরীরে এন্টিবডি তৈরী হয়েছে। এদিকে সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ম্যাকাকা নামের এক প্রজাতির বানরের দেহে এই ভ্যাক্সিন প্রয়োগ করা হয়েছে। আর সেখানেই পাওয়া গেছে সফলতা।

আসলে এই বানরের গ্রুপকে ৪ টি ভাগে ভাগ করা হয়েছে, যার ফলে কিনা পরিকল্পনা করা হয় প্রথম ডোজের ১৪ দিনের মাথায় সেকেন্ড ডোজ। একটি গ্রুপকে দেওয়া হয় প্লেসবো ও বাকি ৩ টি গ্রুপে দেওয়া হয় আলাদা ভ্যাক্সিন। পরে যখন তাদের রিপোর্ট দেখা হয়, তখন দেখা যায় তারা এই ভাইরাস প্রতি রোধ করতে সক্ষম। যা কিনা একটি ইতিবাচক খবর। এর পরে তাদের লালারস সংগ্রহ করা হয় ও টেস্ট করে দেখা হয় ৭ দিন পরেও তারা কেউ আক্রান্ত হয় নি করোনাতে। তার মানে এটাই এই কোভ্যাক্সিন দারুণ ভাবে কাজ করেছে তাদের দেহে।।