ক’ড়া পদক্ষেপ, সিভিসি কো’ড না থাকলে ভ্যা’ক’সি’ন নিতে না বললেন ফিরহাদ হাকিম, জানুন

কসবার ভুয়ো টিকাকরণ কেন্দ্রের বিষয়টি সামনে আসার পর থেকেই সতর্ক হয়েছে প্রশাসন। কোভিড সেন্টারের বাইরে সিভিসি কোড লেখা না থাকলে সেই কেন্দ্রে টিকা নিতে নিষেধ করছে কলকাতা পুরসভা। কলকাতার পুরপ্রশাসক ফিরহাদ হাকিম রাজ্যবাসীকে প্রতারণার হাত থেকে বাঁচানোর জন্য বুধবার এই বিশেষ ঘোষণা করেছেন। ভুয়ো টিকাকরণ কর্মকাণ্ড রুখতেই কার্যত তৎপর হয়েছে প্রশাসন।

বুধবার একটি সাংবাদিক বৈঠকের আয়োজন করে ফিরহাদ হাকিম জানিয়ে দিয়েছেন যে এরপর থেকে আর কোনো টিকাকরণ কেন্দ্রে যাতে জালিয়াতি না চলে তার জন্য প্রত্যেক সেন্টারগুলিকে প্রশাসনের তরফ থেকে সিভিসি কোড দেওয়া হয়েছে। সিভিসি কোড না দেখে কোনো টিকাকরণ কেন্দ্রেই যেন টিকা না নেন রাজ্যবাসী। উল্লেখ্য কসবার কান্ডকে কেন্দ্র করে এই মুহূর্তে উত্তাল রাজ্য। আগামী দিনে যাতে এই ধরনের ঘটনা না ঘটে সেজন্য এখন থেকে সতর্ক হয়েছে প্রশাসন।

ভুয়ো ভ্যাকসিনকাণ্ড প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য, এটা এক ধরনের বিচ্ছিন্ন ঘটনা। অভিযোগ পেয়েই রাজ্য সরকারের তরফ থেকে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এর আগে এমন সাহস দেখাননি কেউ। মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, চক্রান্ত করা হচ্ছে। বাংলাকে বদনাম করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। বুধবার সাংবাদিক বৈঠকে ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন রাজ্যে ইতিমধ্যেই করোনা ভ্যাকসিনের আকাল দেখা দিয়েছে।

ফিরহাদ হাকিম আরও জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে করোনার দ্বিতীয় ডোজের টিকা নেওয়ার জন্য প্রায় ৩৭ লাখ মানুষ অপেক্ষা করছেন। মঙ্গলবার রাজ্যের স্বাস্থ্যসচিব একটি কড়া নির্দেশিকা জারি করে জানানো হয়েছে যে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার ক্ষেত্রে গড়িমসি কোনভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। তারপরেই কার্যত দ্বিতীয় ডোজকে অগ্রাধিকার দিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলো কলকাতা পুরসভা।