বন্ধ স্বাস্থ্যসাথীর কাজ, জেনে নিন কারণ

রাজ্যের ভোটের বাদ্যি দিয়ে বাঁচতেই স্বাস্থ্যসাথী ক্যাম্প বন্ধ করে দিল নির্বাচন কমিশন। আর এই খবর সাধারণ মানুষ না জানতে পারায় অনেকটাই অসুবিধার মধ্যে পড়ল তারা। এই ধরনের কাজকে তৃণমূল ভালো চোখে দেখছে না, তারা জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন নিজেদের সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বিজেপির স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পকে ভোট সাথী হিসেবে কটাক্ষ করেছেন। বিশেষ রাজনৈতিক মহল জানাচ্ছে, এই স্বাস্থ্য সাথী কার্ড হল তৃণমূলের তুরুপের তাস। এই স্বাস্থ্যসচিব ক্যাম্প কেই বন্ধ করে দিল নির্বাচন কমিশন যার কারণে অনেক মানুষ মহা ফাঁপরে পরল।

সূত্রের মাধ্যমে জানা যায়,গতকাল বলা হয় ১১ টা থেকে ৪ টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যসাথী ক্যাম্প চলবে কিন্তু এদিকে নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকেও নির্দেশ দেওয়া হয় বন্ধ করার জন্য। এমনকি ক্যাম্প বন্ধ না করলে ভয় পর্যন্ত দেখানো হয়। হঠাৎ করে এই ক্যাম্প বাতিল হওয়ার কারণে অনেকটাই দুর্ভোগের মুখে পড়ে সাধারণ মানুষ।অনেকেই স্বাস্থ্য সাথী কার্ড তৈরি করার জন্য বিভিন্ন নথিপত্র নিয়ে উপস্থিত হয়েছিলেন ক্যাম্পে কিন্তু বাতিল হওয়ার কারণে বাধ্য হয়ে ফিরে যেতে হয় তাদের।

সূত্রের মাধ্যমে আরও জানা যায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এই প্রকল্পের বিভিন্ন নথিপত্র জমা নেওয়া হয় তারপর থেকে নতুন কোন আবেদনপত্র জমা নেওয়া হয় না কিন্তু এর মধ্যেই হঠাৎ করে ক্যাম্প বন্ধ করে দেওয়ার জন্য শাসকদল নির্বাচন কমিশনকেই দোষারোপ করছে।