সোনার বাংলা তো তৈরি, কাজ বাকি নেই কোনো, বিজেপিকে বিঁধলেন মমতা, ছুঁড়লেন চ্যালেঞ্জ

আসন্ন একুশের বিধানসভা নির্বাচনের প্রেক্ষাপটে রাজনৈতিক দলগুলিতে জোর ভোটের প্রচার চলছে। বিরোধী শিবির গুলি কার্যত ভোট প্রচারের পাশাপাশি একে অপরের জোর সমালোচনায় মেতেছে। কেন্দ্রীয় শাসক দল আসন্ন একুশের নির্বাচনে বঙ্গবাসীকে “সোনার বাংলা” উপহার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তবে রাজ্য শাসকদলের বক্তব্য, তৃণমূল সরকার ইতিমধ্যেই “সোনার বাংলা” গড়ে দিয়েছে।

আজ দুপুরে রানাঘাটের হবিবপুর গ্রামে আয়োজিত তৃণমূলীয় জনসভায় অংশগ্রহণ করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই কেন্দ্রকে নিশানা করে তার বক্তব্য, ” নতুন করে সোনার বাংলা কী গড়বে ওরা? বাংলা অনেক আগেই সোনার বাংলা হয়ে গিয়েছে”। বাংলার উন্নয়নের সব কাজ সারা হয়ে গিয়েছে! এমনটাই বক্তব্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। নিজের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে কন্যাশ্রী, যুবশ্রী, রূপশ্রী, সবুজ সাথী, স্বাস্থ্যসাথী-সহ রাজ্যের সমস্ত প্রকল্পের কথাও উল্লেখ করেন মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রী এও জানিয়েছেন, বাংলায় কোনো কাজ তিনি বাদ রাখেননি। সোনার বাংলা গড়ার প্রসঙ্গকেই নস্যাৎ করে দিয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয় রাজ্যবাসীর সামনে তার দাবি, বাংলা এবার বিশ্ববাংলা হবে। তৃণমূল সরকারই তা করে দেখাবে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এদিনের জনসভা মঞ্চেও বিজেপি সরকারের নাগরিকত্ব আইন নিয়ে কেন্দ্রকে খোঁচা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। অসমের পরিস্থিতি আরও একবার রাজ্যবাসীকে মনে করিয়ে দিয়েছেন তিনি।

তার সঙ্গেই এদিনের সভা মঞ্চ থেকে বিজেপির প্রতি আরও একবার চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে তিনি বলেছেন, বাংলায় নাগরিকত্ব আইন কার্যকর হতে তিনি কখনোই দেবেন না। একুশের লড়াইয়ের প্রেক্ষাপটে বিজেপিকে খোঁচা দিয়ে দলবদল প্রসঙ্গে তার মন্তব্য, “বিজেপি এখন সানলাইট, ওয়াশিং মেশিনে পরিণত হয়েছেন! ওদের দলে কোনো দুর্নীতি নেই। তাই এখন যারাই বিজেপি দলে যোগদান করছে, তারা সবাই স্বচ্ছ হয়ে যাচ্ছে!”