সিঙ্গেল মাদার, কোনো ফিল্মে পাচ্ছেন না অভিনয়ের সুযোগ, তবুও বিলাসবহুল জীবন যাপন করছেন কারিশমা

১৯৯১ সাল থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত বলিউডে চুটিয়ে অভিনয় করেছেন করিশমা কাপুর। মাত্র ১৭ বছর বয়সেই অভিনয় জীবনে আত্মপ্রকাশ করেন তিনি। মায়ের বিরুদ্ধে গিয়ে গ্ল্যামার দুনিয়ায় প্রবেশ করেছিলেন করিশমা।

শাহরুখ খান, গোবিন্দা, সালমান খানের মতো বলিউডের টপ মোস্ট নায়কদের বিপরীতে তার অসামান্য অভিনয় দর্শকদের মন কেড়ে নিয়েছিল। তবে ২০০৩ সালের পর থেকে তাকে আর ইন্ডাস্ট্রিতে দেখা যায়নি।

২০০৩ সালে অভিনেতা সঞ্জয় কাপুরের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন করিশমা। তখন তার ক্যারিয়ার ছিল মধ্যগগনে। তবে তার সংসার করার বাসনায় এতটাই প্রবল ছিল যে এত সফল ক্যারিয়ারও নিমেষেই ছেড়ে দিতে পেরেছিলেন অভিনেত্রী।

ততদিনে তার বোন করিনা কাপুর চলে এসেছেন ইন্ডাস্ট্রিতে। করিশমার সংসার জীবন কিন্তু খুব একটা সুখের হয়নি।

২০০৫ সালে তার প্রথম সন্তান সামাইরার জন্মের পরপরই করিশমা এবং সঞ্জয় আলাদা থাকতে শুরু করেন। এরপর ২০১০ সালে অবশ্য তাদের সম্পর্কের কিছুটা হলেও উন্নতি হয়েছিল। কিন্তু তা বেশিদিন স্থায়ী হয়নি।

২০১৪ সালে আইনত বিচ্ছেদ হয়ে যায় তাদের। শোনা যায় সন্তানদের ভরণ পোষণের জন্য সঞ্জয়ের কাছ থেকে ১৪ কোটি টাকা দাবি করেছিলেন করিশমা এবং তা পেয়েও যান। তা বাদেও নিজের জন্য দশ লাখ টাকা পেয়েছিলেন।

তার উপর আবার বলিউডের “দ্য কাপুর” ফ্যামিলির বড় সন্তান রনধীর কাপুরের যে সম্পত্তি আছে তাও করিশমা এবং করিনার মধ্যেই সমানভাবে বঞ্চিত হয়ে যাবে। ইন্ডাস্ট্রি ছাড়ার পর তাকে ফিল্ম দুনিয়ায় আর সেভাবে দেখা না গেলেও বেশ কিছু মডেলিং শো এবং বিজ্ঞাপনের মুখ হিসেবে দেখা যায় তাকে।

ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি ছাড়ার পরেও তার হাতে যা সম্পত্তি রয়েছে, তার দরুন বেশ ভালোভাবেই জীবন যাপন করতে সক্ষম কারিশমা কাপুর।