নিজেকে শেষ করতে চেয়েছিলেন গায়ক কৈলাশ খের, অভিযোগ করলেন বলিউড নিয়ে

প্রতিটি সফল মানুষের জীবনে সফলতার আলোকের পেছনেই যেন মানসিক অবসাদের এক কালো ছায়া বিরাজ করে। কেউ তা স্বীকার করে নেন, কেউ তা পারেন না। যারা মানসিক অবসাদকে সাধারণ একটি অসুখ হিসেবে বিবেচনা করেই তার সঙ্গে লড়াই করেন, তারা জীবন যুদ্ধে জয়ী হতে পারেন। কিন্তু যারা মানসিক অবসাদকে সঙ্গী করেই প্রতিনিয়ত দিন কাটাচ্ছেন, কিন্তু তার সম্বন্ধে খোলাখুলি কথা বলতে পারেন না, জীবনের আসল “স্ট্রাগল”টা তারাই করেন।

বি-টাউনের জনপ্রিয় অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের আচমকা মৃত্যু যেন আমাদের অনেক কিছু শিখিয়ে দিয়ে গেল। বলিউডের এমন উঠতি প্রতিভার মৃত্যু কেউই যেন মেনে নিতে পারছেন না। এমন প্রাণোচ্ছল, যুব প্রতিভাও যে তলে তলে ভয়ঙ্কর মানসিক অবসাদের শিকার হচ্ছেন, বাইরে থেকে তা আন্দাজ করা যায়নি। যদি তা সম্ভব হতো, তাহলে বলিউডকে অকালেই এমন প্রতিভা হারাতে হতো না।

তবে শুধুই কী সুশান্ত! ডিপ্রেশন কার জীবনে না এসেছে? বি-টাউনের জনপ্রিয় গায়ক কৈলাশ খের, যার সুরের জাদুতে মাতোয়ারা আপামর ভারতবাসী। তিনিও নাকি তার কেরিয়ারের শুরুর দিকে চরম মানসিক অবসাদের শিকার হয়েছিলেন। সেই মানুসিক অবসাদের মাত্রা এতটাই বেড়ে গিয়েছিল যে তিনি বহুবার আত্মহত্যার পথ বেছে নেওয়ার চেষ্টা করেছেন। সম্প্রতি, তিনি তার সেই অন্ধকারময় জীবনের অভিজ্ঞতা সংবাদমাধ্যমের কাছে প্রকাশ করলেন।

তিনি জানিয়েছেন, তিনি যখন গানের জগতে তার কেরিয়ার সবে শুরু করছেন, সেই সময় তাকে অনবরত প্রত্যাখ্যানের সম্মুখীন হতে হচ্ছিল। হতাশায় ডুবে যেতে বসেছিলেন তিনি। ভবিষ্যৎ চিন্তা তাকে কুরে কুরে খাচ্ছিল। একবার, দুবার নয়। বহুবার নিজের জীবন শেষ করে দিতে চেয়েছিলেন তিনি। সৌভাগ্যবশত, তিনি তার প্রচেষ্টায় সফল হননি। নতুবা, কৈলাস খেরের মতো প্রতিভাকেও হারাতে বসেছিল বলিউড।