শেষ লোকসভা নির্বাচনে মমতার পর্দাফাঁস করলেন শুভেন্দু, জেনে নিন কি অভিযোগ

গতকাল দ্বিতীয় দফার নির্বাচনে নন্দীগ্রামের মহারণে কার্যত উত্তাল হয়ে উঠেছিল রাজনৈতিক মহল। গতকাল নির্বাচন উপলক্ষে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বিক্ষিপ্ত অশান্তির খবর এসেছে। তবে নন্দীগ্রামের পরিস্থিতি ছিল ভয়াবহ। চলতি ভোট মরসুমে রাজ্য সবথেকে হাই ভোল্টেজ কেন্দ্রের তাপমাত্রার পারদ সকাল থেকেই ছিল ঊর্ধ্বমুখী। যার ফলে স্বভাবতই রাজ্যের শান্তি-শৃঙ্খলা নিয়ে আরো একবার প্রশ্ন উঠলো।

বিজেপির বিরুদ্ধে ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ এনেছেন তৃণমূল নেত্রী। চুপ করে থাকেন নি তার বিরোধী তথা বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীও। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি টেনে এনেছেন ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের প্রসঙ্গ। শুভেন্দুর দাবি, ২০১৯শে আরামবাগে ১৬টি ইভিএম মেশিনে কাউন্টিং করতে দেননি তৃণমূল নেত্রী। যে কারণেই আসন জিতেছিল তৃণমূল!

বিশিষ্ট সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের কাছে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন শুভেন্দু। তার বক্তব্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে গণতন্ত্রের কথা মানায় না। পশ্চিমবঙ্গে মমতা সরকার গুণ্ডাবাহিনী দিয়ে নির্বাচন সম্পন্ন করে! তৃণমূল সুপ্রিমোর বিরুদ্ধে এমনই বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন তার দলেরই প্রাক্তন সদস্য।

শুভেন্দুর স্পষ্ট দাবি, ২০১৯ শে ডিএম এবং এসডিওর উপর চাপ দিয়ে আরামবাগে ১৬টি ইভিএম কাউন্টিং করতে দেননি তৃণমূল নেত্রী। যে কারণে ওই কেন্দ্রে প্রায় আড়াই হাজার ভোটে হেরে ছিল বিজেপি।