হিন্দু ভোট ভাগ করার চেষ্টায় বাংলায় প্রার্থী দেবে শিবসেনা

গত বছরের শেষ ভাগ থেকেই বাংলার বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজ্যের প্রায় প্রতিটি রাজনৈতিক দলেই কার্যত যুদ্ধের দামামা বেজে গিয়েছে। বিশেষত বিজেপি এবং তৃণমূলের মধ্যে বাংলাকে কেন্দ্র করে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই বাঁধার সম্পূর্ণ সম্ভাবনা রয়েছে। তবে এবার রাজ্যের রাজনীতিতেও ঢুকে পড়ছে ধর্মীয় মেরুকরণ! জাতি-ধর্মের বিচারেই ভোট ভাগাভাগি হতে পারে বঙ্গে। তাই বাংলায় হিন্দু ভোট পেতে কোমর বেঁধে নামছে শিবসেনা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আসন্ন একুশের লড়াইয়ে বাংলার মুসলিম ভোটে কোপ বসাতে চলেছেন আসাদউদ্দিন ওয়েইসি ও পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকিরা। এই নিয়ে চিন্তিত রাজ্য শাসক দল। তবে কেন্দ্রীয় শাসক দলও কিন্তু আর নিশ্চিন্ত থাকতে পারছে না। কারণ হিন্দু ভোট পেতে বাংলার অন্তত ১০০টি আসনে প্রার্থী দিতে চলেছে শিবসেনা। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে স্বয়ং শিবসেনার হয়ে প্রচারের উদ্দেশ্যে বাংলায় আসবেন।

প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে হুগলি, কলকাতা, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, মেদিনীপুর, দমদম, ব্যারাকপুর, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, বিষ্ণুপুর, ঝাড়গ্রামসহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে অন্তত ১০০টি আসনে প্রার্থী দেবে শিবসেনা। সূত্রের খবর, এই মর্মে আগামী ২৯শে জানুয়ারি শিবসেনার সাধারণ সম্পাদক ও সাংসদ অনিল দেশাই বঙ্গে আসছেন। রাজ্যের নেতাকর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করতে চলেছেন তিনি।

দলীয় সূত্রে খবর, ওইদিনই আসন্ন একুশের নির্বাচন সংক্রান্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন শিবসেনার নেতাকর্মীরা। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৯ এ বিজেপির সঙ্গে শিবসেনার জোট ভাঙার পর থেকেই উভয় তরফ এখন কার্যত একে অপরের ঘোর বিরোধী। বিজেপির প্রতিটি পদক্ষেপের ঘর সমালোচনা করে শিবসেনা। এমতাবস্থায় বাংলার হিন্দু ভোটে শিবসেনা ভাগ বসাতে চাইলে স্বভাবতই তা বিজেপির পক্ষে বেশ উদ্বেগজনক হবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।