শি’ত’ল’খু’চি’র আ’ত’ঙ্ক ফিরলো দেগঙ্গায়, গু’লি চালানোর অভিযোগ কে’ন্দ্রী’য় বা’হি’নী’র বি’রু’দ্ধে

শীতলকুচির পরে এবার কেন্দ্রীয় বাহিনীর টার্গেট দেগঙ্গা। চতুর্থ দফার ভোট চলাকালীন যেমন শীতলকুচিতে গুলি চালিয়েছিল কেন্দ্রীয় বাহিনী, পঞ্চম দফার ভোটে এবার সংবাদমাধ্যমের শিরোনামে উঠে এলো দেগঙ্গা। আজ পঞ্চম দফার ভোট চলাকালীন গুলির আওয়াজে দেগঙ্গার শান্তি বিঘ্নিত হলো। পুলিশের লাঠিচার্জের কারণে রক্তাক্ত হলো দেগঙ্গা।

স্থানীয়রা জানাচ্ছেন, এদিন দেগঙ্গার ২১৫ নম্বর বুথের প্রায় ৫০০ মিটার দূরে একটি আমবাগানের মধ্যে এলাকারই কয়েকজন বসে গল্প করছিল। সেই সময় আচমকায় সেখানে পৌঁছে যায় পুলিশ এবং তাদের কোনো কথা না শুনেই শূন্যে চার-পাঁচ রাউন্ড গুলি চালিয়ে বসে তারা। শুধু তাই নয় এলাকার বাসিন্দাদের লাঠিচার্জও করেছে পুলিশ। যার ফলে প্রায় সাতজন স্থানীয় বাসিন্দা আহত হয়েছেন।

অপরপক্ষে একই দিনে দেগঙ্গায় ৮১ নম্বর বুথের সোহাইস্বেতপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে ভোটারদের মারধরের অভিযোগ উঠলো। নদিয়ার শান্তিপুরেও কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন সাধারণ মানুষ। বিশেষত মহিলারা এদিন কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘিরে রেখে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। পরিস্থিতি সামাল দিতে শেষমেষ পুলিশ এবং কেন্দ্রীয় বাহিনীর অন্যান্য সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছান।