এবছর এই কয়েকটি রাশির উপর পড়বে শনির প্রভাব, আপনারটা জেনে নিন এখনই

মানে মানে আমরা পার করে ফেলেছি গত বছর। শোনা যাচ্ছে যে চলতি বছর অত্যন্ত শুভ হবে। বিশেষত জানুয়ারি মাস। কারণ এই মাসের শুরুতে রয়েছে চতুর্থী র যোগ। পৌষ মাসের কৃষ্ণপক্ষের চতুর্থী তিথি সংকষ্টি চাতুর্থি নামেও পরিচিত। এইসময় গণেশ কে পুজো করা হয়। আবার শনিদেবের আরাধনা করা হয়। এই দিন একসঙ্গে শনিদেব এবং গণেশের যদি পুজো করতে পারেন, তাহলে সমস্ত দোষ কেটে যায়। পাশাপাশি রাহু এবং কেতুর দোষ দূর হয়ে যায়। উভয় গ্রহের ফল কে শরীর সমান বলে মনে করা হয়। সুতরাং এই দিন খুব শুভ বলে বিবেচিত করা হচ্ছে।

জ্যোতিষ গণনা অনুযায়ী,এই বছর মিথুন রাশির জাতক এবং তুলা রাশির জাতকদের ওপর শনির প্রভাব থাকবে। একজন ব্যক্তির উপর আড়াই বছর থাকতে পারে শনির প্রকোপ। এই সময়ে সনি যদি অশুভ হয়, তাহলে খুব খারাপ ফলাফল দিতে পারে সেই জাতক-জাতিকাদের ওপর।

এই বছর ধনু, মকর এবং কুম্ভ রাশির জাতক-জাতিকাদের ওপর চলবে শনির সাড়েসাতি। ধনু রাশির জাতক-জাতিকাদের অর্ধ বছর ধরে শনির যোগ রয়েছে। মকর এবং কুম্ভ রাশির উপরে রয়েছে শনির প্রকোপ। এই সময় রোগে জরাজীর্ণ হতে পারে মানুষ, হতে পারে অর্থনৈতিক ক্ষতি।

আর কোন রাশিটি পরিবর্তন হবে না এই বছর। শুধুমাত্র শনির সমষ্টির সময় পরিবর্তন থাকবে। চলতি বছরের 20 শে জানুয়ারি শনি উত্তরাশাদ নক্ষত্রে থাকবে। এই বছরের জানুয়ারি মাসের 22 তারিখ শনি শ্রাবণ নক্ষত্রে থাকবে। এইসময় শনি মকর রাশিতে সঞ্চার করবে, যেখানে সে মিলিত হবে বৃহস্পতির সঙ্গে।

শনির প্রকোপ থেকে যদি আপনি মুক্তি পেতে চান, তাহলে করতে হবে দুস্থদের সাধ্যমত দান। শুধুমাত্র এই কাজ করলে শনি সন্তুষ্ট হন। দরিদ্র এবং অভাবী মানুষের যদি সেবা করতে পারেন,তাহলেই একমাত্র আপনার জীবনে সুখ শান্তি ফিরে আসবে। শনিবার কালো কম্বল দান করলে খুব দ্রুত ভাল ফল দেন শনি ঠাকুর। শনির দোষ ও সাড়ে সাতি থেকে রক্ষা পেতে – ‘ওম প্রমণ প্রাণ প্রান শনেস্বরাই নমঃ’ এই মন্ত্র জপ করুন।