বন্ধুরাষ্ট্র ভারতের পাশে দাঁড়ালো রাশিয়া, ১০ কোটি ক’রোনার টিকা দেবে পুতিনের দেশ

বুধবার রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে প্রকাশিত বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ভারতকে রাশিয়ার গামালেয়া ইনস্টিটিউটের তরফ থেকে আবিষ্কৃত করোনা প্রতিরোধী ভ্যাকসিন “স্পুটনিক ৫” এর প্রায় ১০ কোটি ডোজ দেবে রাশিয়া। ইতিমধ্যেই রাশিয়ার সঙ্গে ভারতের ডক্টর রেড্ডি ল্যাবরেটরির এ সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী, ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল এবং বন্টনে সহায়তা করবে ভারত।

রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছ থেকে অনুমতি পেলেই ডক্টর রেড্ডিকে ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল এবং বন্টনের জন্য ১০০ মিলিয়ন (ভারতীয় হিসেবে যা ১০ কোটি) “স্পুটনিক ৫” টিকার ডোজ পাঠানো হবে। বর্তমানে এই ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চলছে রাশিয়ায়। অ্যাডেনোভাইরাল ভেক্টর প্ল্যাটফর্মের উপর ভিত্তি করে চলছে গবেষণা।

আরডিআইএফের দাবি অনুযায়ী, রাশিয়ান ভ্যাকসিনটি একেবারে সুরক্ষিত এবং নিরাপদ। তাই নিয়ন্ত্রক সংস্থা অনুমতি দিলেই সম্ভবত চলতি বছরের শেষের দিকে ভারতকে টিকা পাঠাতে শুরু করবে রাশিয়া। উল্লেখ্য, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক আধিকারিক জানিয়েছেন, টিকা নিয়ে সহযোগিতা করার জন্য আনুষ্ঠানিক পদ্ধতির বিষয়ে ভারতকে জানিয়েছে রাশিয়া।

তবে নয়াদিল্লির তরফ থেকে অবশ্য এখনো এ বিষয়ে কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। সূত্রের খবর, ভারত এবং রাশিয়া যাতে যৌথভাবে স্পুটনিক’ ৫ ভ্যাকসিন তৈরি এবং উৎপাদনের ক্ষেত্রে পরস্পরকে সহায়তা করে,সেই প্রস্তাব নিয়ে ভারতীয় আধিকারিকদের সাথে গত কয়েক সপ্তাহে আলোচনা করেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত নিকোলাই কুদাশেভ। উল্লেখ্য, রাশিয়ান ভ্যাকসিন সম্পর্কে অবশ্য সন্দেহ প্রকাশ করছেন বিশ্বের তাবড় বৈজ্ঞানিকেরা। ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা এবং নিরাপত্তা সম্পর্কে প্রশ্ন তুলছেন তারা।