সুশান্ত মামলায় নয়া মোড়, অভিনেতার দিদিদের বিরুদ্ধে পাল্টা FIR দায়ের করল রিয়া

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু মামলা এবার এক নতুন মোড় নিল। সুশান্ত মামলায় মূল ষড়যন্ত্রকারিনী হিসেবে অভিযুক্তা সুশান্তের প্রেমিকা তথা মডেল-অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী এবার সুশান্তের দুই দিদি মিতু সিং এবং প্রিয়াঙ্কা সিংসহ নয়া দিল্লির রামমোনহর লোহিয়া হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর ডঃ তরুণ কুমারের বিরুদ্ধে মুম্বাইয়ের বান্দ্রা থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন।

পুলিশ সূত্রে খবর, গতকাল সন্ধে সাতটা থেকে রাত ১২ টা ৫০ অব্দি প্রায় ছয় ঘন্টা ধরে মুম্বাইয়ের বান্দ্রা থানাতেই ছিলেন রিয়া চক্রবর্তী। সেখানেই তিনি মিতু সিং, প্রিয়াঙ্কা সিং এবং ডঃ তরুণ কুমারের বিরুদ্ধে প্রয়াত অভিনেতাকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়া, প্রতারণা,জালিয়াতি এবং অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের সাথে জড়িত থাকার অপরাধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৬৪, ৪৬৫, ৪৬৬, ৪৬৮, ৪৭৪, ৩০৬, ১২০ (বি), ৩৪ ধারায় এবং এনডিপিএস আইন, ১৯৮৫ এর আওতায় ৮(সি), ২১,২২, এবং ২৯ এর আওতায় এফআইআর দায়ের করেন।

সম্প্রতি, সুশান্তের দিদি প্রিয়াঙ্কা সিং এর সাথে প্রয়াত অভিনেতার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের কিছু কথোপকথন প্রকাশ্যে আসে। ৮ই জুনে এসেই কথোপকথন চিত্রে দেখা যায়, সুশান্তের দিদি প্রিয়াঙ্কা সিং বেআইনিভাবে ভাইকে বেশ কিছু ওষুধ প্রেসক্রাইব করছেন। সেই তথ্য তুলে ধরে রিয়ার অভিযোগ, প্রিয়াঙ্কা সুশান্তকে যে ওষুধগুলি প্রেসক্রাইব করেছেন সেগুলি এনডিপিএস আইনের আওতায় নিয়ন্ত্রিত। ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন ছাড়া সেগুলি মেলে না।

আবার ওই দিনই প্রিয়াঙ্কা দিল্লির রাম মনোহর লোহিয়া হাসপাতালের ডঃ তরুণ কুমারের প্রেসক্রিপশন পাঠান সুশান্তকে। ডঃ তরুণ কুমার কিভাবে সুশান্তের সাথে কোনো রকম পরামর্শ ছাড়াই এনডিপিএসের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত এই ওষুধগুলি প্রেসক্রাইব করতে পারেন সে সম্পর্কে প্রশ্ন তুলে অভিযোগ দায়ের করেছেন রিয়া চক্রবর্তী। রিয়ার দাবি এই প্রেসক্রিপশন জাল। মুম্বাই থাকাকালীন কিভাবে প্রেসক্রিপশনের তথ্য অনুযায়ী দিল্লিতে চিকিৎসা করাতে পারেন সুশান্ত? উল্লেখ্য, বান্দ্রা থানার পুলিশ অবশ্য সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মতো রিয়ার অভিযোগ সিবিআইয়ের হাতে সমর্পণ করেছে।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন