“চাল চুরি যেন টিকা চুরিতে পরিণত না হয়”, তৃণমূলকে কটাক্ষ বাবুল সুপ্রিয়োর

সম্প্রতি রানাঘাটের জনসভায় অংশগ্রহণ করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিকে “ওয়াশিং মেশিন” বলে কটাক্ষ করেন। আসন্ন একুশের বিধানসভা নির্বাচনের প্রেক্ষাপটে দলবদলকারীরা কার্যত সেই ওয়াশিং মেশিনে দোষমুক্ত হয়ে যাচ্ছেন বলে কটাক্ষ করেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীর এদিনের কটাক্ষের জবাব দিলেন বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বলেন, তৃণমূলে যারা এখনও ভালো মানুষ রয়েছেন তাদের মূলস্রোতে ফিরিয়ে আনছে বিজেপি!

মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের জবাব দিতে গিয়ে বাবুলের মন্তব্য, “কিছু ভালো মানুষ তৃণমূলের ওয়াশিং মেশিনে ঢুকে কালো হয়ে গিয়েছিলেন! যারা দিদির অনুপ্রেরণায় ভুল পথে এগোচ্ছিলেন, বাংলার গৌরব ফিরিয়ে আনতে তাদেরই সমাজের মূলস্রোতে ফিরিয়ে আনতে হবে।” দলবদল প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি আরও বলেছেন, ভুল মানুষ মাত্রই হয়। তাই সেই ভুল শুধরে নিতে হয়। বাংলার মানুষও ২০১১ সালে ভুল করেছিলেন।

বাবুল বলেছেন, বাংলার মানুষ এখন পরিবর্তন চান। তৃণমূলে এখনও যারা ভালো আছেন, তাদের দলে নিয়ে বিজেপি তাই কার্যত বাংলার মানুষের পাশে থেকে বাংলার মানুষের জন্য কাজ করতে চায়। তৃণমূল নেতা-কর্মীদের দলে নেওয়া প্রসঙ্গে বাবুলের বক্তব্য, “লোহা দিয়েই লোহা কাটা হবে!” পাশাপাশি আমফানের ত্রাণ দুর্নীতির প্রসঙ্গ টেনে এনে তার আশঙ্কা, এ রাজ্যে ভ্যাকসিন নিয়েও সেই একই দুর্নীতি না হয়!

কেন্দ্রীয় সরকারের খরচে আগামী ১৬ই জানুয়ারি থেকে দেশজুড়ে গণহারে টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হবে। এমতাবস্থায় রাজ্য সরকার ঘোষণা করেন, “রাজ্যবাসীকে বিনামূল্যে করোনার টিকা প্রদান করতে পেরে তিনি অত্যন্ত খুশি”। তার এই মন্তব্য স্বভাবতই রাজনীতির আগুনে ঘিয়ের কাজ করে। বিজেপির নেতাকর্মীরা এ প্রসঙ্গে রাজ্য সরকারের ঘোর বিরোধিতা করেন। বাবুল সুপ্রিয়ও “দিদি”র এই মন্তব্যের বিরোধিতা করেছেন।