পুরানো ঘ’রে ফিরলেও চি’ন্তা বা’ড়’লো মুকুলের, স্ত্রীর শা’রী’রি’ক অবস্থার অ’ব’ন’তি

আজই তৃণমূল শিবিরের পুনরায় অভিষেক হলো তার। দীর্ঘ চার বছরের বিরতির পর পুনরায় আবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হয়েই রাজনীতি করবেন রাজনীতির চাণক্য মুকুল রায়! এতদিন তাকে ঘিরে যে জল্পনা চলেছে, এবার তার অবসান হলো। পুরনো বাড়ি ফিরতে পেরে বেশ খুশি মুকুল এবং তার ছেলে শুভ্রাংশু রায়। তাকে ফিরে পেয়ে তৃণমূল কংগ্রেসও বেশ খুশি। তবে এত কিছু ভালোর মধ্যেও মুকুল রায় ব্যক্তিগত জীবনটা এখন খুব একটা ভালো যাচ্ছে না।

বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই তার স্ত্রী কৃষ্ণা রায় হাসপাতালে জীবন মরণের সঙ্গে লড়াই করছেন। মুকুল রায় যেদিন পুরনো শিবিরে ফিরলেন, ঠিক সেদিনই তার শারীরিক অবস্থার আরো অবনতি হলো। বর্তমানে কলকাতায় বাইপাসের ধারে অ্যাপোলো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মুকুল পত্নী কৃষ্ণা রায়। তার শারীরিক অবস্থার এতটাই অবনতি হয়েছে যে চিকিৎসকরা তার ফুসফুস ট্রানস্প্লান্টেশনের কথা ভাবছেন।

আপাতত ব্রেন ডেথ হয়ে গিয়েছে এমন দাতার ফুসফুস নিয়ে তা কৃষ্ণা রায়ের শরীরে প্রতিস্থাপন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অ্যাপোলো হাসপাতালের চিকিৎসকেরা। চেন্নাই থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের দলের তরফ থেকে পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে। কৃষ্ণা রায়ের যে রকম শারীরিক অবস্থা তাতে তাকে এই মুহূর্তে অন্য কোথাও স্থানান্তর করা যাবে না। তাই কলকাতাতে রেখেই তার চিকিৎসা করাতে হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি মুকুল রায় তার পরিবারসহ করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়েছিলেন। মুকুল রায় এবং তার ছেলে শুভ্রাংশু রায় বিপদ কাটিয়ে উঠলেও তার স্ত্রী এখনো সুস্থ হননি। বরং দিন প্রতিদিন তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা।