হিজাবটি একটু সরান, চোখ দুটি দেখি, চীনা দূতাবাসের টুইটে সমালোচনা

কেবলমাত্র একটি টুইট যেটা একেবারে তীব্র বিতরকের মুখে ফেলে দিয়েছে পাকিস্তানের চীনা দূতাবাসের কালচারাল পরামর্শদাতা ঝাং হেকিং কে।কিন্তু হঠাৎ করে কি এমন হলো যার কারণে তিনি জড়িয়ে পড়লেন তীব্র বিতর্কে।আর সেই কারণেই ক্ষোভ উগরে দিয়েছে পাকিস্তানের নেটিজেনরা। সম্প্রতি হেকিং তার টুইটার হ্যান্ডেলে এক চিনা যুবতীর নাচের ভিডিও শেয়ার করেছেন, আর সেখানেই ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন হিজাব খুলে ফেলো তোমার চোখদুটো দেখি। আর এই নিয়েই শুরু হয়েছে পাকিস্তানের তীব্র বিতর্ক। আর সেই কারণেই একেবারে ক্ষোভ উগরে দিয়েছে নেটিজেনরা।

আমরা সবাই জানি একজন মুসলিম নারীর ক্ষেত্রে হিজাব কতটা গুরুত্বপূর্ণ একটি বস্ত্র। বলা যেতে পারে এই হিজাব পরা আসলে একটি রীতি যার দ্বারা নারীর শরীর মুখ ঢেকে রাখা হয় কিন্তু এই সমস্ত কিছু জেনেও হ্যাকিংয়ের এই ধরনের টুইট সত্যিই উত্তপ্ত করে তুলেছে সোশ্যাল মিডিয়াকে। অনেকেই জানাচ্ছে এই টুইটের জন্য, সম্পর্কে ফাটল পর্যন্ত ধরতে পারে চীন ও পাকিস্তানের। কারন অনেকেই দাবি করছে হেকিং ইসলাম ধর্মকে অসম্মান করেছেন তার এই টুইটের মাধ্যমে।

এই দুইটার পর অনেক নেটিজেন তাদের নিজস্ব বক্তব্য প্রকাশ করেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। একজন বলেছেন,এই ধরনের ইসলামবিরোধী মন্তব্যের জেরে চীন ও পাকিস্তানের সম্পর্কে ফাটল ধরার সম্ভাবনা রয়েছে। হ্যাকিং এর মত মানুষের জন্য এই ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হচ্ছে।।