সুশান্তের মৃত্যু তদন্তে AIIMS-এর রিপোর্ট মানতে নারাজ, ফের গর্জে উঠলেন কঙ্গনা

সম্প্রতি, দিল্লির এইমসের ফরেনসিক টিমের তরফ থেকে সিবিআই কাছে একটি রিপোর্ট পেশ করে জানানো হয়, বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত খুন হন নি। মুম্বাই পুলিশের অনুমানই ঠিক। আত্মঘাতী হয়েছেন বলিউড অভিনেতা। অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সের তরফ থেকে প্রকাশিত এই রিপোর্টের বিরুদ্ধে আবারও সোচ্চার হলেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত।

এই রিপোর্টের পরিপ্রেক্ষিতে ট্যুইট করে কঙ্গনার বিস্ফোরক মন্তব্য, কোনো প্রতিভাবান যুবক যে কোনো একদিন সকালে উঠে হঠাৎ করে নিশ্চয়ই নিজেকে শেষ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেবেন না। তিনি আরো বলেন, সুশান্ত নিজে মুখে স্বীকার করেছেন যে তিনি ইন্ড্রাস্ট্রিতে অপমানিত এবং নির্বাসিত হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন। এমনকি তিনি তার জীবন নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেছিলেন।

কঙ্গনা লিখেছেন, সুশান্ত বলেছিলেন বলিউডের মুভি মাফিয়ারা তাকে ব্যান, অপমান করেছিল। এমনকি সে ধর্ষণের অভিযোগে ফেঁসে যেতে পারে বলেও অবসাদে ভুগছিল। এমইএসের রিপোর্টের পরিপ্রেক্ষিতে কঙ্গনা বেশ কিছু প্রশ্ন তুলেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তার প্রথম প্রশ্ন, সুশান্ত বার বার বলেছিলেন, বড় বড় প্রোডাকশন হাউজ গুলি তাকে ব্যান করেছে। তারা কারা, যারা সুশান্তের বিরুদ্ধে এরকম ষড়যন্ত্র করলো?

কঙ্গনার দ্বিতীয় প্রশ্ন, সংবাদমাধ্যমের তরফ থেকে কেন তার বিরুদ্ধে মিথ্যে ধর্ষণের অভিযোগ তোলা হলো? কঙ্গনার তৃতীয় প্রশ্ন মহেশ ভাটকে নিয়ে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি প্রশ্ন তুললেন, মহেশ ভাট কেন বারবার সুশান্তের মানসিক অবসাদের দিকেই জোর দিলেন। ফরেন্সিক টিমের রিপোর্ট প্রকাশের পরেই কঙ্গনার এই বিস্ফোরক মন্তব্যের জেরে আবারও সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু রহস্য মামলার তদন্তের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।