সরকারি চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ হচ্ছে না, সাফ জানিয়ে দিল কেন্দ্র

করোনা মহামারীর আবহে, খরচ কমাতে কেন্দ্রীয় সরকার সরকারি চাকরির নিয়োগে কাটছাঁট করতে পারে; সম্প্রতি এই আশঙ্কাতেই ভুগছিলেন দেশের বেকার যুবক-যুবতীরা। বিশেষ করে শুক্রবার অর্থ মন্ত্রকের তরফ থেকে একটি বিশেষ নির্দেশিকা প্রকাশ করার পর থেকেই চাকরিপ্রার্থীদের মনে এই আশঙ্কা বদ্ধমূল হয়। তবে এই আশঙ্কাকে একেবারেই ভিত্তিহীন প্রমাণ করে দিয়ে কেন্দ্রের তরফ থেকে জানানো হলো, বর্তমানে এই ধরনের কোনো পরিকল্পনা করছে না সরকার।

শনিবার বিকেলে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের তরফ থেকে একটি টুইট বার্তায় জানানো হয়েছে, কেন্দ্রীয় সরকারি চাকরির পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনো কাটছাঁট করা হয়নি। পাশাপাশি তিনি স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন, স্টাফ সিলেকশন কমিশন, ইউপিএসসি, রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ডে নিয়োগসহ অন্যান্য সরকারিক্ষেত্র গুলিতে যেমনভাবে আগে নিয়োগ করা হতো, ভবিষ্যতেও সেভাবেই নিয়োগ করা হবে।

উল্লেখ্য গত শুক্রবার, কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের এক্সপেন্ডিচার ডিপার্টমেন্টের তরফ থেকে প্রকাশিত একটি নির্দেশিকায় জানানো হয়, মহামারীর আবহে কেন্দ্রের খরচ কমাতে বহু পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। যেমন, জরুরী পরিকল্পনাগুলি বিচার করে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে সেগুলি বাস্তবায়িত করতে অর্থের যোগান দেবে কেন্দ্র। অর্থাৎ, প্রয়োজন বুঝে বেশ কিছু ক্ষেত্রে অর্থ বরাদ্দে কাটছাঁট করতে পারে কেন্দ্র।

পাশাপাশি, এক্সপেন্ডিচার ডিপার্টমেন্টের অনুমোদন ছাড়া কোনো মন্ত্রক, দপ্তর এবং স্বায়ত্তশাসিত পরিষদ গুলিতে নতুন সরকারি পদ সৃষ্টি করা যাবে না বলেও জানানো হয়েছে নির্দেশিকাতে। এই নির্দেশিকার সমালোচনা করে টুইট করেছিলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। দেশবাসীর মধ্যে গুঞ্জন উঠেছিল, সরকারি দপ্তরে নিয়োগ বন্ধের পাশাপাশি কর্মী ছাঁটাইয়েরও পরিকল্পনা রয়েছে কেন্দ্রের। তবে নতুন নির্দেশিকা প্রকাশ করে সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটালো কেন্দ্র।