রেকর্ড পতন তেলের দামে, অর্থনীতি চাঙ্গা করতে লিটার প্রতি 15 টাকা দাম কমাচ্ছে পাকরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক বাজারের ওপর নির্ভর করেই দেশে পেট্রলের দাম ওঠা নামা করে। এককথায় এভাবেই ঘরোয়া বাজারে জ্বালানির দাম স্থির করে প্রতিটি দেশ। যেহেতু বিশ্বজুড়ে লকডাউন চলছে তাই কিছু দিন ধরেই আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম অনেকটাই পড়ে গিয়েছে। তবে বাজারে দর কমলেও তাতে কিন্তু বিন্দুমাত্র সুবিধা হয়নি সাধারণ মানুষের। লকডাউন পরিয়ডেও ১ মে তারিখ অবধি ভারতের তেল কোম্পানিগুলি কিন্তু দামে কোনো হেরফের কমেনি।

চাহিদা কমে যাওয়ার সত্ত্বেও তেলের দাম কমায়নি তেল কোম্পানি গুলি। অনেক ক্ষেত্রে আবার দাম বেড়েছে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে যখন ১ এপ্রিল থেকে এখনও পর্যন্ত অসম, কর্নাটক, মহারাষ্ট্র, পশ্চিমবঙ্গ এবং নাগাল্যান্ড পেট্রল ও ডিজেলে ভ্যাট বাড়িয়েছিল। তার উল্টে চিত্র ধরা পড়েছে পাকিস্তানে। জ্বালানি থেকে কর সংগ্রহ করতেই হয়।

কিন্তু তা সত্ত্বেও অয়েল অ্যান্ড রেগুলেটরি অথরিটির তরফে সরকারের কাছে পেট্রোপন্যের দাম কমানো নিয়ে সুপারিশ করেছিল, সেই সুপারিশ মেনে অবশেষে প্রতি লিটারে ১৫ টাকা করে দাম কমানোর সিদ্ধান্ত নিল পাক সরকার। এমনিতেই ভারতে পেট্রোপন্যের দাম নিয়ে বেশ আশঙ্কা প্রকাশ করেছে দেশবাসী। এমনিতেই এখন অনেক পেট্রোল পাম্পগুলিতে কানায় কানায় তেল রয়েছে। তা সত্ত্বেও ঘরবন্দি মানুষ বাইরে বেরতে পারছে না বলে পেট্রল ভরছেন না। আর সেই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে দাম নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন অনেকেই।

সব খবর সরাসরি পড়তে আমাদের WhatsApp  Telegram  Facebook Group যুক্ত হতে ক্লিক করুন

/p>