BREAKING: উত্তরপ্রদেশ পুলিশের হাতে গ্রেফতার রাহুল-প্রিয়াঙ্কা, লাঠিচার্জেরও অভিযোগ

হাথরাসের নির্যাতিতা তরুনীর পরিবারের সাথে দেখা করতে গিয়ে উত্তর প্রদেশের পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হলেন কংগ্রেস দলনেতা রাহুল গান্ধী। বিশিষ্ট সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের রিপোর্ট থেকে জানা গেল, হাথরাসে ঢোকার চেষ্টা করতে গিয়ে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৮৮ ধারাবলে রাহুল গান্ধীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে গ্রেফতার করা হয়েছে কিনা সে সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি। উল্লেখ্য, হাথরাসের নির্যাতিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে এদিন চরম হেনস্থার শিকার হন রাহুল এবং প্রিয়াঙ্কা।

গ্রেটার নয়ডার কাছেই রাহুল এবং প্রিয়াঙ্কার কনভয় আটকে দেয় পুলিশ প্রশাসন। বাধা পেয়ে তারা সেখান থেকে পদব্রজেই হাথরাসের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। ১৪২ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে হাথরাসে পৌঁছানোর চেষ্টা করেন তারা। তবে তাদের আটকাতে আগে থেকেই হাথরাসের সীমানার সীল করে দেয় উত্তরপ্রদেশের প্রশাসন। শুধু তাই নয়, ওই এলাকায় যাতে বাইরে থেকে কেউ প্রবেশ না করতে পারে সেজন্য করোনা মহামারীর দোহাই দিয়ে হাথরাসকে কনটেইনমেন্ট জোন ঘোষণা করে দেওয়া হয়।

এতেও ক্ষান্ত থাকেনি যোগী সরকার। বিরোধীরা নির্যাতিতার পরিবারের সাথে যাতে কোনোভাবেই দেখা না করতে পারে, সেই জন্য ওই এলাকায় ১৪৪ ধারাও জারি করা হয়েছে। এদিন শত বাধা সত্ত্বেও কড়া রোদের মধ্যে হাথরাসের উদ্দেশ্যে দীর্ঘ পথ অতিক্রম করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেন কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা। তবে, যমুনা এক্সপ্রেসওয়ের কাছে আবারো তাদের আটকায় পুলিশ। রাহুল গান্ধীকে সাফ জানানো হয়, যদি এরপর এক পা-ও এগোনো চেষ্টা করেন তারা তাহলে তাদেরকে গ্রেফতার করা হবে।

এ প্রসঙ্গে রাহুল বলেন, ১৪৪ ধারা বলে জমায়েত নিষিদ্ধ। তাহলে অন্ততপক্ষে তাকে একা নির্যাতিতার পরিবারের কাছে যেতে দেওয়া হোক। কিন্তু রাহুলের এই দাবি মানতে নারাজ পুলিশ। উল্লেখ্য এ দিন, পুলিশের বাধার মুখে পড়ে ধস্তাধস্তির চলাকালীন একসময় মাটিতে পড়েও যান রাহুল গান্ধী। পুলিশকর্মীরা রাহুলকে গ্রেপ্তারের পূর্বে জানান, উত্তরপ্রদেশে ১৪৪ ধারা ও মহামারী আইন ভঙ্গ করার অপরাধে ১৮৮ ধারাবলে গ্রেফতার করা হলো তাকে।