সামনেই পুজো, আগামী সোমবার থেকে রাজ্যে ৭২ ঘন্টার ট্রাক ধর্মঘট

পুজোর আর বেশী দেরি নেই, তার আগেই তিন দিনের এক বিশাল ধর্মঘট । আজ্ঞে হ্যা তিন দফার দাবিতে এই ট্রাক ধর্মঘট আগামী সোমবার থেকে বুধবার পর্যন্ত। আগামী ১৪ অক্টোবর রাজ্যব্যাপী ট্রাক ধর্মঘট। ফেডারেশন অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রাক অপারেটার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকেই ডাকা হয়েছে এই ধর্মঘট। তাদের ধর্মঘটের মাধ্যমে কিছু দাবি মানতেই হবে, তার মধ্যে ওভারলোডিং বন্ধ করতে হবে সাথে এক্সেল লোড চালু করতে হবে। যদি দেখা যায় এক্সেল লোড চালু হয়েছে অনেক রাজ্যে, কিন্তু পশ্চিমবঙ্গে এখনও চালু হয় নি এক্সেল লোড, এতোদিন চুপ থাকলেও এবার সরব হয়েছে তারা যার ফলেই পূজোর আগেই একেবারে ডেকে বসলো ট্রাক ধর্মঘট।

এদিকে যদি দেখা যায় ওভারলোডিং এর কারণেই রাস্তার বেহাল দশা, তাই এবার থেকে আর কোনোভাবেই ওভার লোডিং নয়। তাছাড়া প্রশাসনিক জুলুম বাজি এই কথাও উল্লেখ করেছে ট্রাক মালিক ও চালকেরা।রাজ্যের পুলিশ বা কখনও মোটর ভেহিক্যালস দফতর এদের জুলুম বাজি বন্ধ করতেই হবে। এখানেই শেষ না, সংগঠন দাবি করেছে, এখন করোনার সময় এই সময়ে রোড ট্যাক্স, পারমিট ও ফিটনেসের ক্ষেত্রেও ছাড় দিতে হবে।

অন্যান্য রাজ্য থেকে যেসব সবজি, মাছ, ডিম ও ওষুধ পত্রের গাড়ি আসে, সেগুলোকে ঢুকতে দেওয়া যাবে না। আর এটা না মানলে পুজোর সময় লাগাতার ধর্মঘট হবে, এমনকি পুজোর পরেও ৬ লক্ষ ট্রাক রাজ্য জুড়ে অবরুদ্ধ করার কথাও বলা হয়েছে। এ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে বসতেই হবে, এমনকি যদি দেখা যায় এই কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে কয়েক লক্ষ মানুষ এই ট্রাকের সাথেই জড়িত। এদিএক ভিন রাজ্যের ট্রাকের থেকে আদায় করা হচ্ছে অতিরিক্ত কয়র, যার ফলেই কিনা দেখা যাচ্ছে রাজ্যের প্রয়োজনীয় সামগ্রীর দাম বেড়ে যাচ্ছে চড়চড়িয়ে।।