প্রাথমিকে ১০ হাজার ৫০০ শিক্ষক নি’য়ো’গের বি’জ্ঞ’প্তি প্র’কা’শ, কাউন্সেলিং হ’বে অনলাইনে, জেনে নিন

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন পুজোর আগেই প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে। এবার সরকারের তরফ থেকে প্রকাশিত একটি নতুন নির্দেশিকায় জানিয়ে দেওয়া হল যে, প্রাথমিকে ১০ হাজার ৫০০ শিক্ষককে অনলাইন কাউন্সেলিং মারফত নিয়োগ করা হবে। সম্প্রতি সংশ্লিষ্ট দপ্তরের তরফ থেকে এ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এই নির্ঘণ্ট প্রকাশ করেছে।

এই বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে যে আগামী ১২ই জুলাই থেকে ১৯শে জুলাই অবধি অনলাইনে প্রার্থীরা তাদের রোল নম্বর ও জন্মতারিখ দাখিল করে জেলা নির্বাচন করতে পারবেন। অর্থাৎ প্রার্থীরা তাদের পছন্দসই জেলাতে নিয়োগের জন্য আবেদন করতে পারেন। উল্লেখ্য প্রাইমারিতে এই প্রথম অনলাইন কাউন্সেলিং চলছে। তার জন্য প্রার্থীদের রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। সংশ্লিষ্ট জেলার ডিপিএসসি থেকে নিয়োগপত্র তুলে দেওয়া হবে নির্বাচিত প্রার্থীর হাতে।

পুজোর আগে রাজ্যে প্রাথমিক ও উচ্চ প্রাথমিকের মোট ২৪ হাজার ৫০০ শিক্ষক নিয়োগ করতে চলেছে রাজ্য সরকার। সম্পূর্ণ মেধার ভিত্তিতেই এই নিয়োগ হবে বলে জানানো হয়েছে। রাজ্যের প্রাথমিক স্কুলগুলিতে ১০ হাজার ৫০০ শিক্ষক নিয়োগ করার কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেল। বিধানসভা নির্বাচনে আগে প্রাথমিকে নিয়োগ হয়েছিল প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজারেরও বেশি। ইতিমধ্যেই নতুন শিক্ষকেরা কাজে যোগ দিয়ে ফেলেছেন।

রাজ্য আবার নতুন করে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করাতে স্বভাবতই খুশি চাকরিপ্রার্থীরা। বর্তমানে করোনা সতর্কতা বিধি মেনে প্রাথমিকে আরও শিক্ষক নিয়োগ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। এখন অনলাইনে কাউন্সেলিং প্রক্রিয়ায় নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করার প্রচেষ্টায় রত প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।